??????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????

কুমিল্লার চান্দিনায় পানি পড়া আনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কলেজছাত্রী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাদরাসা হুজুর মো. শাহপরানকে আটক করেছে পুলিশ। ধর্ষণের অভিযোগে বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে চান্দিনা থানায় ওই কলেজছাত্রী মামলা করেছেন। শাহপরান চান্দিনা উপজেলার এতবারপুর গ্রামের মো. সুন্দর আলীর ছেলে।

ভুক্তভোগী ও পুলিশের বরাতে জানা যায়, দীর্ঘদিন পেটের পীড়ায় ভোগার কারণে জেঠাতো ভাইয়ের পরামর্শে গত (১৪ ফেব্রুয়ারি) হারং উত্তরপাড়া আল কারিম মাদরাসার হুজুরের কাছে ঝাড়-ফুক করার জন্য আসে ভুক্তভোগী। হুজুর প্রথম দিন পানিতে ফু দিয়ে আরও কয়েকদিন আসার জন্য বলে। হুজুরের কথামত বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে মাদরাসায় আসার পর হুজুর জ্বিনের চালান দেওয়ার কথা বলে তার অফিস কক্ষে নিয়ে দরজা আটকিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

এদিকে চান্দিনায় গত (১৬ ফেব্রুয়ারি) ১৮ বছর বয়সী এক বাক প্রতিবন্ধীকেও ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বাক প্রতিবন্ধীর পিতা বাদী হয়ে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লিমন মিয়াজীকে (২০) আসামী করে চান্দিনা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিলে ঘর থেকে বের হওয়ার পর পার্শ্ববর্তী বাড়ির লিমন জোর পূর্বক ধর্ষণ করে বাক প্রতিবন্ধীকে।

চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শাসমউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, দুটি ধর্ষণের ঘটনার প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়। কলেজ ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মাদরাসার হুজুরকে আটক করা হয়েছে। প্রতিবন্ধী ধর্ষণের ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিকে আটক করার চেষ্টা চলছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: