কুমিল্লায় পালক ভাই কর্তৃক জোর করে সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার দক্ষিণ আশ্রাফপুর নোয়াগাঁও চৌমুহনীতে পালক ভাই কর্তৃক সম্পত্তি দখলের অভিযোগ করেন
হনুফা আক্তার সীমা (৪০) নামের একজন মহিলা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লা জেলা পরিষদ রেষ্ট হাউজের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এসব তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে হনুফা আক্তার সীমা বলেন, আমার স্বামী মৃত খোকন মিয়া, আমার বাবা মৃত কোরবান আলী সাং দক্ষিণ আশ্রাফপুর নোয়াগাঁও চৌমুহনী সদর দক্ষিণ ২১ নং ওয়ার্ড কুমিল্লা। আমরা মোট ৫ বোন, আমার স্বামীর মৃত্যুর পর আমার মাসহ আমরা দীর্ঘদিন যাবত বাবার বাড়িতে বসবাস করে আসতেছি।

উল্লেখ্য, আমাদের ৫ বোনের মধ্যে আমাদের কোন ভাই না থাকায় আমার বাবা ৩৫ বছর আগে একই এলাকার মৃত আরব আলির ছেলে মোঃ দেলোয়ার হোসেনকে যার বর্তমান বয়স ৩৮ বছর, তার ভরন পোষনসহ সার্বিক দায়িত্ব (পালক পুত্র হিসেবে) পালন করেন আমার বাবা। কিন্তু আমার বাবা কোরবান আলীর মৃত্যুর পর আমার পালক ভাই দেলোয়ার হোসেন ও আমার চাচা খন্দকার বাড়ির বাসিন্দা ২১ নং ওয়ার্ড এর কৃষকলীগের আহবায়ক সেলিম মিয়া (৪৫) সহ কিছু কুচক্রীমহল আমার বাবার পৈত্রিক সম্পত্তি ৬ শতক জায়গা ভুয়া দলিল করে হাতিয়ে নেয়। কিছুদিন পর আমরা জানতে পারি আমাদের মাকে পাগল সাজিয়ে পালক ভাই দেলোয়ার হোসেন ও সেলিম আমাদের বাবার সম্পত্তি দখলের চেষ্টা চালায়। এতে আমি বাধা দিলে দেলোয়ার ও সেলিম বাহিনীর লোকজন আমাদের পরিবারের উপর অতর্কিত হামলা করে আমাদের ঘর বাড়ি ও আসবাবপত্রসহ আমাদের প্রায় ৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়। তখন তাদের হামলায় আমি অসুস্থ হয়ে কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার পর ৩০-১০-২০২১ ইং তারিখে কুমিল্লার আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। মামলা নং- ৪৪/৫২৭।

আমি মামলা দায়ের করার পর আমার পালক ভাই দেলোয়ার তার দলবলসহ আমাদেরকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়, বর্তমানে আমরা অন্যের বাড়িতে ভাড়া থাকি এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে আমরা আমাদের বাবার সম্পত্তি ফেরত পেতে সহযোগীতা চাই।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ