নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লা বুড়িচংয়ের কংশনগরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে হালিম নামের এক ডাকাত সর্দার নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছে আরো দুই ডাকাতকে। ডাকাতদের সাথে সংঘর্ষকালে কুমিল্লা ডিবি পুলিশের ওসিসহ তিনজন আহত হয়েছে।

কুমিল্লা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল-মামুন জানান, কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক সড়কের বুড়িচংয়ের কংশনগর বাজারের কাছে একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন খবর পেয়ে ডিবি পুলিশের ওসি নাসির উদ্দিন মৃধার নেতৃত্বে একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। এসময় ডাকাতদল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশেকে লক্ষ করে ইট পাটকেল ও গুলি ছুড়ে। পুলিশও আত্নরক্ষার্থে ৩৭ রাউন্ড শর্ট গানের গুলি ছুড়ে। গুলাগুলির এক পর্যায়ে বুড়িচংয়ের বাজেবাহেরচর গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে ডাকাত সর্দার আবদুল হালিম গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে আহত অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার মৃত ঘোষনা করেন। একই ঘটনায় ডাকাত দলের সদস্য জাকির হোসেন ও লিমন সরকার নামের দুইজন গ্রেফতার হয়। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি পিস্তল ,এক রাউন্ড গুলি ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে। আবদুল হালিমের নামে কুমিল্লার বিভিন্ন থানায় সড়ক ডাকাতি,বোমা বিস্ফোরন, বাড়ি ডাকাতিসহ ১৪টি মামলা রয়েছে ।

সংঘর্ষেকালে ডিবি পুলিশের ওসি নাসির উদ্দিন মৃধা,কন্সটেবল আবদুল্লাহ ও সাইফুল আহত হয়। নিহত হালিমের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: