নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গত ১৩ নভেম্বর, সোমবার নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ৬৯তম জন্মদিন উপলক্ষে হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্র কুমিল্লার উদ্যোগে নগরীর নজরুল ইন্সটিটিউট কেন্দ্রে এক মনোমুগ্ধকর আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথমেই কুমিল্লার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আয়োজক ‘ হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্র কুমিল্লা’।

এরপর হুমায়ূন আহমেদের জীবন ও সাহিত্য নিয়ে বিশেষ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সংগঠক ও হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্রের সম্মানিত উপদেষ্টা বদরুল হুদা জেনু। অন্যান্য আলোচকদের মধ্যে ছিলেন প্রবীন নাট্য ব্যক্তিত্ব হাসিম আপ্পু ও শাহজাহান চৌধুরী। আরো উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এ এইচ এম শফি উল্লাহ। উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন জাকির।

পুরো আয়োজনটির সভাপতির পদ অলংকৃত কলেন হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ইকরামুল হাসান ইথার। অতিথিদের বক্তব্যের মাঝে ‘ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটার’ ও কুমিল্লা কলেজ থিয়েটারের নাট্যকর্মীর অংশগ্রহণে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক পরিবেশনা পরিবেশিত হয়। হুমায়ূন আহমেদ রচিত গান, গানের সাথে নৃত্য এবং হুমায়ূন আহমেদ স্মরণে কবিতা পাঠ করা হয়। আলোচনা সভা শেষে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়। সর্বমোট তিনটি বিভাগে নয় জন বিজয়ী প্রতিযোগীকে হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সনদপত্র, হুমায়ূন আহমেদ এর বই ও সংগঠনের স্মরণিকা প্রদান করা হয়। এ প্রতিযোগিতা পরিচালনা করেন বিশিষ্ট চিত্রকর ও কবি সৈয়দ আহমাদ তারেক। এরপর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ইকরামুল হাসান ইথারকে সভাপতি এবং মোঃ খায়রুল বাশারকে সাধারণ সম্পাদক করে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মেয়াদ বিশিষ্ট হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্রের নব নির্বাচিত কমিটি প্রকাশ করা হয়।

অনুষ্ঠানের সর্বশেষ চমক ছিল যাত্রিক নাট্যগোষ্ঠীর পরিবেশনায় হুমায়ূন আহমেদ রচিত মঞ্চ নাটক ‘স্বপ্ন’। উপভোগ্য এ নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন বিদ্যুৎ সরকার। এ নাটকটির মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে হুমায়ূন জন্মোৎবের যবনিকা ঘটে। সর্বশেষ নব নির্বাচিত সভাপতি, আয়োজনে অংশ নেয়া সকল সংগঠন ও সহযোগী সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পুরো আয়োজনটির আহবায়কের দায়িত্ব পালন ও সঞ্চালনা করেন জয়নাল আবেদীন রনি। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ইকরামুল হাসান ইথার।এই জন্মোৎসব শেষে আগামীতে হুমায়ূন সাহিত্য নিয়ে বিশেষ পাঠচক্র ও সেমিনারের আয়োজন করবে বলে জানানো হয়-হুমায়ূন চর্চা কেন্দ্রের পক্ষ থেকে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: