সরকারি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি মারা গেছেন (ইন্নান…রাজিউন)।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) ৩ টা ৩০মিনিটে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু ঘটে কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসন থেকে পাঁচবার নির্বাচিত প্রবীণ ওই সংসদ সদস্যের। তাঁর একমাত্র তনয় মুনতাকিম আশরাফ টিটু বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বর্ষিয়ান ওই আওয়ামীলীগ নেতার মৃত্যুতে তাঁর নির্বাচনী এলাকা চান্দিনাসহ কুমিল্লা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে, এক ছেলে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

চান্দিনার গল্লাই মুন্সি বাড়ির মরহুম মো. ইসমাইল হোসেন মুন্সির ছেলে অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি ১৯৬২ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় বাংলাদেশ ছাত্র লীগে যোগদান করে রাজনীতি অঙ্গণে পা রাখেন।

১৯৭০ এর পাকিস্থান সংসদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে ‘মই’ প্রতীক নিয়ে অংশ গ্রহণ করেন। ওই নির্বাচনে জয় না পেলেও ‘মাছ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ১৯৭৩ সালের প্রথম বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সর্ব কনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ যতগুলো নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেন সকল নির্বাচনেই তিনি আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তিনি ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৫ম বারের মত বিজয় লাভ করেন।

২০০০ সালে সপ্তম জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুর মধ্য দিয়ে প্রায় ৬০ বছরের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের ইতি টানেন বর্ষিয়াণ ওই আওয়ামী লীগ নেতা।

এর আগে, অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি গলব্লাডারের স্টোন সংক্রান্ত সমস্যায় গত ২ জুলাই রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শরীরে নানা রোগের উপসর্গ দেখা দেয়। সাথে নি্উমোনিয়া রোগেও আক্রান্ত হন। পরবর্তীতে ৯ জুলাই তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সেখানে ৭৪ বছর বয়সী প্রবীণ ওই নেতার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ২১ জুলাই বিকাল ৩টায় লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: