নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বর্তমান বিশ্ব প্রযুক্তি নির্ভর বিশ্ব। বিশ্বায়নে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পুরো বিশ্ব এখন ভার্চুয়াল জগতে প্রবেশ করেছে।তারই ধারাবাহিকতায় ঐতিহ্যবাহী কুমিল্লা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ‘‘স্কিলস কম্পিটিশন ২০১৭’’ অনুষ্ঠিত হয়। কুমিল্লা জেলার সরকারী বেসরকারী ১২টি পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের আগমনে উৎসবমুখর পরিবেশে এই প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। স্কিলস কম্পিটিশনের বর্ণাঢ্য র‌্যালীটি পলিটেকনিক ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণ এবং চাঙ্গিনী সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার কলেজ প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়।

র‌্যালিতে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মোঃ আবিদ হোসেন,কারিগরী ও মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন) ডাঃ মোঃ ফারুক হোসেন,কুমিল্লা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মোহাম্মদ বাবর আলী সহ স্কিলস কম্পিটিশনে অংশগ্রহণকারী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ।র‌্যালী শেষে সকল বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা তাদের নিজ নিজ প্রকল্প উপস্থাপন করে। শিক্ষার্থীরা তাদের নতুন নতুন চিন্তাধারা ও আবিষ্কারকে বাস্তবতায় ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা চালায়। নতুন কিছু তৈরীর চিন্তাধারাকে বাস্তবায়ন প্রকাশ করাই এই প্রতিযোগীতার মূল লক্ষ্য। এর মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের প্রতিভা বিকাশ ও তাদের মাঝে আবিষ্কারের আগ্রহ সৃষ্টি করা হয়। স্কিলস কম্পিটিশনের মাধ্যমে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের প্রতিভা ও বৈজ্ঞানিক চিন্তাধারা বিকাশ করার এটি একটি বড় মাধ্যম।

স্কিলস এন্ড ট্রেনিং এনহেন্সমেন্ট এর অন্যান্য লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের কে মাসিক ৮০০ টাকা করে বৃত্তি প্রদান।প্রায় সকল শিক্ষককে দেশে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি সিংগাপুরের ন্যানিয়াং পলিটেকনিকে উন্নততর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা।নির্বাচিত সরকারী ও বেসরকারী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সকল ল্যাব ও শপে আধুনিক যন্ত্রপাতি ও মালামাল সরবরাহ।কারিগরী শিক্ষার প্রচার প্রসারের রক্ষ্যে সেমিনার,গোলটেবিল বৈঠক,কারিগরী শিক্ষা সপ্তাহ উদযাপন ইত্যাদি ব্যবস্থা করা ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: