কুমিল্লা মুরাদনগরে বিজয় দিবসে প্রশাসনের চাঁদাবাজি

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার মুরাদনগরে বিজয় দিবস উদযাপনের নামে প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিপুল পরিমাণ চাঁদা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ দিবসকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন ধরে উপজেলা প্রশাসনের নামে বিভিন্ন ব্যক্তি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের এমন কর্মকাণ্ডে এলাকায় বেশ সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

দিবসটি পালনের জন্য সরকারি তহবিল থেকে অর্থ বরাদ্দও করা হয়েছে। কিন্তু এ দিবস পালনের জন্য কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসনের নামে সাধারণ ব্যক্তিরা, উপজেলার সব ইটভাটা, ওষুধের ফার্মেসি, স’ মিল বড় বড় ব্যবসায়ী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ চাঁদা আদায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা এর সঙ্গে জড়িত থাকায় ব্যবসায়ীরা বাধ্য হয়ে এসব চাঁদা পরিশোধ করতে হয়েছে। চাঁদা আদায়ের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ব্যক্তিগত সহকারী ও সেক্টর অনুসারে প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরের একজন করে কর্মকর্তাকে সমন্বয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়। স্থানীয়রা জানায়, শুধু বিজয় দিবস নয় বিভিন্ন দিবসের নামে উপজেলা প্রশাসনের এ চাঁদা আদায় এখন অনেকটা রেওয়াজে পরিণত হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইটভাটা ব্যবসায়ী জানান, বিজয় দিবস উদযাপনের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতি ইটভাটা থেকে ৮ হাজার টাকা করে চাঁদা নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেলুল কাদের বলেন, স্বাধীনতা দিবস পালনের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে স্বল্প পরিমাণের একটা বরাদ্দ আসে, যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। তাই বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে কিছু টাকা নিতে হয়। তিনি বলেন, আমরা জোরপূর্বক কারও কাছ থেকে টাকা আদায় করি না, যারা ইচ্ছে করে আমাদের সহযোগিতা করে তাদের কাছ থেকেই কিছু অর্থ নেয়া হয়।

সূত্রঃ যুগান্তর

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  

ফেসবুকে আমরাঃ