কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নির্দেশনা মোতাবেক কুমিল্লা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আসাদুল ইসলামের নেতৃত্বে উপজেলার বাবুর্চি বাজার ও চৌদ্দগ্রাম বাজার এলাকায় তদারকিমূলক অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

এ সময় মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রি, নির্ধারিত মূল্যের অতিরিক্ত মূল্যে স্যানিটাইজার বিক্রি, প্রতিশ্রুত পণ্য যথাযথভাবে সরবরাহ না করা, মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে ভোক্তা সাধারণকে প্রতারিত করার মতো ভোক্তা অধিকার বিরোধী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৬টি প্রতিষ্ঠানকে অধিদপ্তরের প্রশাসনিক এখতিয়ারে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় ৪৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানাকৃত প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ভোজন বিলাস ব্রেড এন্ড বেকারিকে ১০ হাজার টাকা, মায়ের দোয়া ফ্যামিলি সপকে ৫ হাজার টাকা, ওয়াসিম ষ্টোরকে ৩ হাজার টাকা, নিউ মেসিং কসমেটিকসকে ৭ হাজার টাকা, আমানত কসমেটিকসকে ৪ হাজার টাকা এবং নিউ ভাই ভাই ষ্টোরকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তদারকিমূলক এ অভিযানে উক্ত এলাকার ফল ব্যবসায়ী, সবজি বিক্রেতা, মসলার দোকানী ও ফার্মেসীর মালিকদের নির্ধারিত মূল্যে নিত্যপণ্য, ঔষধ ও অন্যান্য মেডিকেল ইকুইপমেন্ট বিক্রির প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়। কারসাজি করে নিত্যপণ্য ও ঔষধ সামগ্রীর দাম বৃদ্ধি না করতে, পাইকারি ক্রয়ের ভাউচার সংরক্ষণ ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ের অনুরোধ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মো. ইমাম হোসেন সজীব, সংশ্লিষ্ট বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ। চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশ ও জেলা পুলিশের একটি টিম এ কাজে সার্বিক সহযোগিতা করেন।

জনস্বার্থে এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান কুমিল্লা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন সহকারী পরিচালক মো. আসাদুল ইসলাম।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: