কুমিল্লা ইপিজেডে কর্মরত শ্রমিকদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। প্রথম দফায় এই ইপিজেডের বিভিন্ন কারখানায় কর্মরত ১০ হাজার শ্রমিককে টিকা দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় ও বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা (বেপজা) কুমিল্লার উদ্যোগে ইপিজেডের ৯টি কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের প্রথম দফার এই টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন হয়েছে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন- কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন। সভাপতিত্ব করেন- কুমিল্লা ইপিজেডের মহাব্যবস্থাপক মো. জিল্লুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন- ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. শাহাদাত হোসেন, কাদেনা স্পোর্টস ওয়্যার লিমিটেডের উৎপাদন পরিচালক আব্দুল মাজেদ, বেপজার শিল্প ও সম্পর্ক পরিচালক আশিক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, কাদেনা স্পোর্টস ওয়্যার লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, আব্দুল কুদ্দুস, মো. হারুন ও উপ-মহাব্যবস্থাপক এনামুল হক প্রমুখ।

বেপজার শিল্প ও সম্পর্ক পরিচালক আশিক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানান, কুমিল্লা ইপিজেডে ৪৫টি কারখানা রয়েছে। এসব কারখানায় বর্তমানে ৩৮ হাজার শ্রমিক কাজ করছেন। সংক্রমণ রোধে ১০ হাজার শ্রমিককে নিবন্ধনের আওতায় আনা হয়েছে। মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার (১৭, ১৮ ও ১৯ আগস্ট) এই তিন দিনে নিবন্ধিত ১০ হাজার শ্রমিককে টিকা দেওয়া হবে।

তিনি আরও জানান, শ্রমিকদের মাঝে টিকা পুশ করবেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রশিক্ষিত নার্সরা। তাদের সহযোগিতা করবেন ৯টি কারখানার মেডিক্যাল টিমের সদস্যরা।

কাদেনা স্পোর্টস ওয়্যার লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ বাকী বিল্লাহ বলেন, করোনাভাইরাসের টিকা প্রদানে প্রথমে সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে তাদেরকে নিবন্ধন করানো হয়। মঙ্গলবার প্রথম দিন এক হাজার ৮০০ শ্রমিককে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি রয়েছে। পর্যাপ্ত পরিমাণে টিকা পেলে তিন দিনের মধ্যে কারখানার সব শ্রমিককে টিকাদানের কাজ সম্পন্ন করা যাবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: