সবার নজর কাড়ছে কুমিল্লার ময়নামতি রেলওয়ে স্টেশন। ছবি দেখেই অনেকে মন্তব্য করছেন এটা কি দেশের কোনো রেলস্টেশন? ছবিতে যেমন সুন্দর, বাস্তবে আরও বেশি দৃষ্টিনন্দন।

ময়নামতি রেলওয়ে স্টেশন কুমিল্লা নগরীর জাঙ্গালিয়া এলাকায় অবস্থিত। বর্তমানে রেলস্টেশনের টিকেট কাউন্টার ও লাইটিং পোস্টের কাজ চলমান রয়েছে। তবে এটি রক্ষণাবেক্ষণে হিমশিম খাচ্ছে সিকিউরিটি গার্ডরা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দৃষ্টিনন্দন এ স্টেশনটির ছবি ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকে দূর-দূরান্ত থেকে স্টেশনটি দেখতে আসছেন। স্টেশনের সঙ্গে রয়েছে জাঙ্গালিয়া কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ড ও ইপিজেড। আন্তঃনগরসহ সকল যাত্রীবাহী ট্রেনের যাত্রাবিরতি দাবি করেছেন স্থানীয়রা। তবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বলছেন, যাত্রীবাহী ট্রেন থামানোর ব্যাপারে এখনো কোনো পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়নি।

জানা যায়, ২০১৬ সালে জনবল সংকটের কারণে ময়নামতি রেলস্টেশনটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এক বছর পর চালু করলেও কোনো ট্রেন থামেনি। এ ছাড়া টিকেটও বিক্রি হয়নি। তবে নতুন স্টেশনে বিশ্রামাগার-টিকেট কাউন্টারসহ সকল সুবিধা রয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা মেহেদী হাসান বলেন, দৃষ্টিনন্দন রেলস্টেশন পেয়ে আমরা খুব খুশি। তবে ট্রেন যদি না থামে তাহলে জনসাধারণের কোনো উপকারে আসবে না। যেহেতু দুই কিলোমিটারের মধ্যে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় রেলস্টেশন রয়েছে তাই ইপিজেডকে প্রাধান্য করে ময়নামতি স্টেশন দৃষ্টিনন্দন করা হয়েছে।

সিকিউরিটি গার্ড আবু সাঈদ বলেন, অনেকে দূর থেকে এসে স্টেশনের সৌন্দর্য উপভোগ করেন। মধ্যরাতে অনেক বখাটে আড্ডা দিয়ে থাকে। তাদের চলে যেতে বললে পাথর মেরে গ্লাস ভেঙে ফেলে। এই সৌন্দর্য রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. সফিকুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, ময়নামতি স্টেশনে কাজ প্রায় শেষ। আপতত এখানে কোনো যাত্রীবাহী ট্রেন থামানোর পরিকল্পনা নেই। ভবিষ্যতে লোকাল ট্রেন চললে এই স্টেশনটি কার্যকর হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: