নিজস্ব প্রতিবেদকঃ পরকীয়া প্রেমের সন্দেহে কুমিল্লায় নাসিমা আক্তার (২৫) নামে এক স্কুল শিক্ষিকাকে ছুরিকাঘাত ও জবাই করে হত্যা করেছে তার স্বামী। সোমবার (৩০ অক্টোবর) রাতে ১০টায় লাকসাম উপজেলার অশ্বদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর পরই এলাকাবাসী অভিযুক্ত স্বামী মাসুদ হোসেন আটক করে পুলিশে খবর দেয়। তাদের এক ছেলে ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে বলে জানা গেছে। ঘাতক মাসুদ একজন সিএনজি চালক। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আবদুল মোতালেব বাদী হয়ে মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) মাসদুকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, কুমিল্লার নবাগত লালমাই উপজেলার জয়নগর গ্রামের সফিকুর রহমানের কন্যা নাসিমা আক্তার অশ্বদিয়া কিন্ডার গার্ডেনে শিক্ষকতা করতেন। তাদের একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে। সিএনজি চালক মাসুদ স্ত্রী পরকীয়া প্রেমে আসক্ত বলে প্রত্যেক দিনই নাসিমা আক্তারের সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত হত। সোমবার রাতে খাবারের সময় পরকীয়ার বিষয়ে ফের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এরই এক পর্যায়ে পাষন্ড স্বামী মাসুদ হোসেন ঘরে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে স্ত্রী নাছিমা আক্তারকে উপযুপরি ছুরিকাঘাত করে এবং পরে মাটিতে শুয়ে ছুরি দিয়ে জবাই করে হত্যা করে। এ সময় এলাকাবাসী নাছিমা আক্তারের চিৎকার শুনে ছুটে আসে। এবং ঘাতক মাসুদকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে নিহতের উদ্ধার করে এবং ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। এ ছাড়া ঘাতক স্বামী মাসুদকে হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কুমিল্লার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, নিহত নাসিমার শরীরে অন্তত ২৫টি আঘাত করেছে ঘাতক স্বামী।

লাকসাম থানার এএসআই ফরাদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় নিহতের ভাই আবদুল মোতালেব বাদী হয়ে মাসুদকে একমাত্র আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, সিএনজি চালক মাসুদ স্ত্রী নাসিমা একটি কিন্ডার গার্ডেনে শিক্ষকতা করতো। শিক্ষকতা পাশাপাশি পরকীয়া প্রেমের বিষয়ে সন্দেহ করতো মাসুদ। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ঝগড়া লেগে ছিল। ওই দিন রাতে ঝগড়ার একপর্যায়ে মাসুদ নাসিমাকে ছুরি দিয়ে অন্তত ২৫টি আঘাত করে। একপর্যায়ে গলাও কেটে ফেলে। এতে ঘটনাস্থলেই নাসিমার মৃত্যু হয়। ঘাতক মাসুদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: