প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

ঢাকা থেকে প্রকাশিত ভোরের পাতা নামে একটি অনলাইন পত্রিকায় ‘ কুমিল্লায় পুলিশের সামনে ঘুরে বেড়াচ্ছে ২৫ মামলার আসামির জাকির’ এই শিরোনামে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের প্রসঙ্গে বিবৃতি দিয়েছেন কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়ন পরিষদের দুইবারের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ জাকির হোসেন ঠিকাদার।
এক লিখিত বিবৃতিতে তিনি উল্লেখ করেন, তিনি দীর্ঘ ৩০ বছর যাবৎ ঠিকাদারি ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। ২০১১ সাল থেকে অদ্যাবধি তিনি বুড়িচং উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। তাছাড়া তিনি পীর যাত্রাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বুড়িচং উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক পদে বিদ্যমান আছেন।
চেয়ারম্যান থাকাকালীন গত ১০ বছরে তিনি পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসায় দুই কোটি টাকার উপরে অনুদান প্রদান করেন।
এছাড়াও তিনি পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নে তিন কোটি টাকার জমি দান করে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন৷ এবং নিজ উদ্যোগে শিক্ষকদের বেতন ভাতা প্রদান সহ শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে পড়ালেখার সুযোগ করে দিয়েছেন। তিনি কোমাল্লা এলকায় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য জমি দান করেছেন।
তিনি আরো বলেন, পীরযাত্রাপুর ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠার পর থেকে কোন নিজস্ব ভূমি কিংবা ভবন ছিল না। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর নিজ উদ্যোগে নিজের টাকা খরচ করে জমি ক্রয় করে ইউনিয়ন পরিষদের ভবন তৈরির ব্যবস্থা করেন।
এলাকার গরিব দুঃখী অসহায় মানুষের বিপদে-আপদে তিনি এগিয়ে আসেছেন। তার এই জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে একটি শ্রেণীর অসাধু লোক তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।
সম্প্রতি সময়ে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় রাতের আধারে পোস্টার টানিয়ে তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালায়।
যার প্রতিবাদে ১০ হাজার এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ ও সংবাদ সম্মেলন করে।

এতেও তারা ক্ষান্ত না হয়ে ঢাকা থেকে প্রকাশিত একটি অনলাইন পত্রিকায় ঢাকার এক সাংবাদিক দিয়ে হয়রানি মূলক মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে।
ওই সংবাদে উল্লেখ করা হয়, তার বিরুদ্ধে হত্যা ভূমিদস্যুতা প্রতারণা সহ ২৫ টি মামলা রয়েছে এবং ১৫ টি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি আছে।
এ বিষয়ে জাকির হোসেন আরো বলেন, দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে তিনি ঠিকাদারি ব্যবসা পরিচালনা করার কারণে বিভিন্ন লোকজনের সাথে টাকা-পয়সাও ব্যবসায়ীর মালামাল ক্রয় বিক্রয় সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছে। তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নেই তিনি আদালত থেকে সকল মামলায় জামিনে আছেন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে হত্যা দস্যুতা ভূমি দখল কোন মামলা নেই।
এছাড়া প্রকাশিত ওই সংবাদে তার কোন বক্তব্য নেয়া হয়নি।
তিনি আরো বলেন, ঠিকাদারি ব্যবসা পরিচালনা এবং সরকারকে নিয়মিত কর দিয়ে আসছেন তিনি। ২০১৩ সালে কুমিল্লা জেলার শ্রেষ্ঠ করদাতা হিসেবে সম্মাননা লাভ করেন তিনি।
অপপ্রচারের বিষয়ে জাকির হোসেন জাহের চেয়ারম্যান বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিপক্ষের লোকজনের জনপ্রিয়তা না থাকায় তারা তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি মূলক অপপ্রচার চালাচ্ছেন।
তিনি অপপ্রচার ও প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ যানান।
তিনি আরো বলেন সাংবাদিকরা জাতির বিবেক সাংবাদিকের লেখনীর মাধ্যমে সত্য উদঘাটিত হয়। অসত্য এবং মিথ্যা সংবাদে একটি মানুষকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানির শিকার হতে হয়।
তিনি আশাবাদী ভবিষ্যতে সাংবাদিকরা সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে সত্যতা যাচাই করে সংবাদ পরিবেশন করবেন।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ