কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) সম্পর্কে ভারতের ক্ষমতাসীন দলের দুইজন নেতা বিতর্কিত মন্তব্য করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করেছে।

রবিবার (১২ জুন) সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বরের সামনে মানববন্ধন শুরু হয়। মানববন্ধন শেষে বিশ্ববিদ্যালয় অভ্যন্তরে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে গোল চত্বরে এসে বিক্ষোভ মিছিল শেষ হয়।

মানববন্ধনে আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আবু মুসা বলেন, আমার প্রিয় রাসুল নিয়ে যারা কটুবাক্য দিয়েছে। তারা আজকে এসে দেখ, নবীর প্রিয়রা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়েছে। যারা কট্টর হিন্দুবাদ তারা সবসময় মুসলিমের বিরুদ্ধে কথা বলে। যারা নবীকে নিয়ে কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে আমরা তীব্র নিন্দা জানায়। আমরা সরকারের কাছে অনুরোধ জানায় আপনি মুসলিম দেশের প্রধান হিসাবে সেই দুইজন কুলাঙ্গারের বিরুদ্ধে একটা বিবৃতি দেন।

বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী আবু জাফর বলেন, যে সমাজে একসময় নারীর কোন সম্মান ছিল না সেই সমাজে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) মেয়েদের সম্মান বৃদ্ধি করেছেন। পৃথিবীতে একমাত্র ইসলাম হলো শান্তির ধর্ম। ভারতসহ পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গা একদিন মুসলিম শাসকরা শাসন করেছেন। তারা কোনদিন হিন্দুদের উপর জবরদস্তি করেননি। কিন্তু বর্তমানে ভারতে মুসলিমদের উপর চলছে চরম নির্যাতন। এটা মেনে নেওয়া যায় না।

মানববন্ধনে গনিত বিভাগের শিক্ষার্থী আল আমিন বলেন, ভারতীয় দুই নেতার এরকম বক্তব্যে আমরা তীব্র নিন্দা জানাই। সারা বিশ্বের মুসলিম সমাজ এক হয়ে আমরা এই কুলাঙ্গার দুই নেতার ধর্মীয় শান্তি বিনষ্টের দায়ে সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা। আর ওই একই ইস্যুতে দলটির দিল্লি ইউনিটের প্রধান নাভিন জিন্দাল টুইট করার পর বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: