কুমিল্লা পল্লী বিদ্যূৎ সমিতি-২ বুড়িচং জোনাল অফিসের লাইনম্যানরা জেলার বুড়িচং উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নের সাদকপুর গ্রামের উদার গাজীর বাড়ীর মঞ্জুর আলীর ছেলে আঃ মোমিন,তার মেয়ে শাহিন সুলতানা ও পুত্রবধু শিউলী আক্তার ব্যাপক মারধর করে এবং দেশী অস্ত্র দা দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করেছে। এই বিষয়ে আবদুল মোমিন বুড়িচং থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা পল্লিবিদ্যুৎ সমিতি-২ এর বুড়িচং জোনাল অফিসের লাইনম্যান মোঃ সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে ৪/৫ জন লোক গতকাল ১৪ মার্চ দুপুরে একই উপজেলার সাদকপুর গ্রামের আঃ মোমিনের বাড়িতে গাছের ডাল কাটার উদ্দেশ্যে বাড়িতে প্রবেশ করে। এই সময় মোমিনের মেয়ে শাহিন সুলতানা ও পুত্রবধু শিউলী আক্তার গোসলখানা গোসল করতেছিল। বাড়িতে অন্য কোন পুরুষ মানুষ না থাকায় সাইফুল ইসলাম জোড়পূর্বক তাদের গোসল খানায় প্রবেশ করে। এই সময় শাহিন সুলতানা ও শিউলী বেগম লাইনম্যান সাইফুলের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ালে সাইফুল ইসলাম মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পাশের জগতপুর গ্রামের তিতু মিয়ার ছেলে মোঃ সুমন, জজু মিয়ার ছেলে মোঃ জামসেদ, বাচ্চু মিয়ার ছেলে মোঃ সবুজসহ আরো ৮/১০ নিয়ে আসে এবং দেশীয় অস্ত্র দা দিয়ে হামলা চালিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে মোমিন, তার মেয়ে শাহিন সুলাতানা, পুত্রবধু শিউলী আক্তার আহত করে। তাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা দৌড়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। আহতদেরকে উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

খবর পেয়ে বুড়িচং থানার ওসি মোঃ মোজাম্মেল হক পিপিএম এর নির্দেশে এস আই বিনোদ কুমার সঙ্গী ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে।

এই বিষয়ে কুমিল্লা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২ বুড়িচং জোনাল অফিসের ডিজিএম মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, আমাদের লাইনম্যান সাইফুলের সাথে স্থানীয়রা খারাপ ব্যবহার করায় গাছ কাটার শ্রমিকরা শুনে পরবর্তীতে জড়ো হয়ে হামলা করেছে বলে শুনেছি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: