নিজস্ব প্রতিবেদকঃ শনিবার সন্ধ্যা সাতটায় শেষ হয় কর অঞ্চল-কুমিল্লা কর্তৃক আয়োজিত আয়কর মেলা-২০১৭। এ মেলায় কর অঞ্চল-কুমিল্লার গতকাল পর্যন্ত মোট আহরণ ছিল ৭,৩৪,৯৮,৭৭৫/- টাকা। কেবলমাত্র কুমিল্লা জেলায় গতকালের আহরণ ২,৬৮,৬৩,১৬০/-  টাকা। ফেনী জেলায় ২৫,২৭,০১২/-টাকা, নোয়াখালী জেলায় ৪৯,৭৭,৬১২/- টাকা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় ৩৫,৮৭,৬২০/-টাকা, লক্ষ¥ীপুর জেলায় ৬,২২,৩৫১/-টাকা এবং চাঁদপুর জেলায় ৯,০১,৯০৭/-টাকা।

শনিবার কুমিল্লা হতে ইটিআইএন গ্রহণ করেন ১২৩ জন। সর্বমোট রিটার্ন দাখিল করেন ২২৪২ জন করদাতা। মোট সেবা গ্রহণকারীর সংখ্যা ৫১৪২জন। ইটিআইএন রি-রেজিস্ট্রেশন গ্রহণ কারীর সংখ্যা শূণ্য। ফেনী জেলায়  ইটিআইএন গ্রহণ করেন ২৮ জন। সর্বমোট রিটার্ন দাখিল করেন ৯২১ জন করদাতা এবং সেবা গ্রহণকারীর সংখ্যা ৯৮৯জন। নোয়াখালী জেলায় নতুন ইটিআইএন গ্রহণ করেন ৩৫ জন। আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন ৮১২ জন করদাতা।  সেবা গ্রহণকারীর সংখ্যা ২২৮৫ জন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় নতুন ইটিআইএন গ্রহণ করেন ১০ জন। আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন ৬৪০ জন এবং কর সেবা গ্রহণকারীর সংখ্যা ১৬৩৫ জন। লক্ষ¥ীপুর জেলায় নতুন ইটিআইএন গ্রহণ করেন ০৫ জন। আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন ২৭২ জন এবং কর সেবা গ্রহণকারীর সংখ্যা ৭৯৮ জন। চাঁদপুর জেলায় নতুন ইটিআইএন গ্রহণ করেন ২০ জন। আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন ৪১০ জন এবং কর সেবা গ্রহীতার সংখ্যা ১৪৯০ জন।

এছাড়াও নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আজও আয়কর মেলা-২০১৭ চলবে। কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম এবং লাকসাম উপজেলায় আজ ভ্রাম্যমাণ মেলা হবে। ফেনী জেলার দাগনভূঞাঁ উপজেলায় রবিবার ভ্রাম্যমাণ মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

কর অঞ্চল কুমিল্লা কর্তৃপক্ষ সরকারের সকল প্রতিষ্ঠান, কর্তৃপক্ষ এবং বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্টসহ মেলায় সহযোগিতাকারী সকলের নিকট তাদের কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে মেলার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: