কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার এমপি বলেছেন, যে এলাকার রাজনৈতিক পরিবেশ যত ভালো সেই এলাকার শাসন ব্যবস্থাও তত ভালো। রাজনৈতিক পরিবেশ ভালো থাকলে সাধারন মানুষও ভালো থাকে। কুমিল্লার আওয়ামী লীগ আজ অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে শক্তিশালী ও সুসংগঠিত। আমরা দলের নেতৃত্ব পাওয়ার পর পাড়া-মহল্লায় ঘুরে ঘুরে কর্মী সৃষ্টি করেছি ।

সংগঠনকে শক্তিশালী করেছি। তৃণমূল থেকে আমরা দলে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আমরা কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা পাঠাবো। চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিবে দলীয় প্রধান বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। নৌকার মালিক শেখ হাসিনা। সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে নৌকাকে বিজয়ী করে শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে হবে।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় প্রার্থী নির্ধারণে শনিবার (২০ মার্চ) দুপুরে কুমিল্লা সদর উপজেলার ২ নং দূর্গাপুর (উত্তর) ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাজী বাহার এমপি এসব কথা বলেন।

আলেকজান মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের মিলনায়তনে আয়োজিত দূর্গাপুর (উত্তর) ইউনিয়ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার এমপি। আলোচনা সভা শেষে এমপি বাহার গনতান্তিক প্রক্রিয়ার মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩ জন নেতার মধ্যে একজন প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিলে অপর দুইজনের মধ্যে সরাসরি ভোটের আয়োজন করেন। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উপস্থিত জন নেতার সিংহভাগ বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদকে দলীয় মনোনয়নের জন্য সমর্থন জানান। পরে সর্বসম্মতিক্রমে দলীয় প্রার্থী হিসেবে পরিচ্ছন্ন ইমেজের রাজনীতিবিদ হিসেবে খ্যাত আবুল কালাম আজাদ এর নাম কেন্দ্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়। অপর দুই মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও বর্তমান চেয়ার আবুল কালাম আজাদকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার করেন।

আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক কাজী আবুল বাসারের সভাপতিত্বে সভায় অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আবিদুর রহমান জাহাঙ্গীর, আদর্শ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এড.মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল, আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আহাম্মেদ নিয়াজ পাবেল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ব্যাংকার কামাল হোসেন, ,মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক সাদেকুর রহমান পিয়াস প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ ২০১১ সালে বিপুল ভোটের ব্যবধানে দূর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এলাকার ব্যাপক উন্নয়নের কারণে ২০১৬ সালে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় দ্বিতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। হাজী বাহার এমপির আস্থাভাজন কর্মী হিসেবে টানা দুবার বিজয়ের ফলশ্রুতিতে এলাকার মানুষের কল্যানে আজাদ চেয়ারম্যানের ব্যাপক কর্মকান্ড সর্বমহলে প্রশংসিত হয়। পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবেও এলাকায় তার বেশ খ্যাতি রয়েছে। বিশেষ করে করোনাকালীন দূর্যোগের শুরু থেকে একজন সম্মূখযোদ্ধা হিসেবে মানুষের পাশে ছিলেন। সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ,খাদ্য সহায়তা প্রদান,কর্মহীনদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা, কৃষি উৎপাদনে সহায়তা প্রদান সহ নানামূখি প্রদক্ষেপ জনগনের মাঝে বেশ সাড়া জাগায়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: