কুবির বাসে আবারো দুর্বৃত্তের হামলা, আহত ২ ।। শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ

কুবি প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) শিক্ষার্থী পরিবহন বাসে দৃর্বৃত্তরা হামলা চালিয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) দুপুর ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের দশম ব্যাচের শিক্ষার্থী দ্বীন মোহাম্মদ এবং বাসটির চালক আলাউদ্দিন আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে শিক্ষার্থীদের নিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সংস্থার ভাড়া করা একটি বাস ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের গেটে আসলে হঠাৎ সামনের দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেল বাসের গতিরোধ করে। এ সময় মোটরসাইকেলে থাকা ২/৩ জন বাস ড্রাইভার আলাউদ্দিনের উপর চড়াও হয় এবং তাকে বাস থেকে নিচে নামিয়ে মারধর করে। এ সময় চালককে মারধর করার কারণ জানতে চান গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ১০ম ব্যাচের শিক্ষার্থী দ্বীন মোহাম্মদ। এসময় তারা দ্বীন মোহাম্মদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর শুরু করে। কিছুক্ষণের মধ্যেই আশেপাশ থেকা বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র ও চাপাতি নিয়ে তার উপর হামলা চালায় এবং এলোপাথাড়ি কিল ঘুষি দিতে থাকে।

এ সময় বাসে থাকা শিক্ষার্থীরা ভিডিও করার চেষ্টা করলে মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয় এবং বাস আটকিয়ে রাখে।

এসময় বাসে থাকা শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন যে ভিক্টোরিয়া কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সদস্য আশিকের নেতৃত্বে এই হামলা চালানো হয়। তবে এ বিষয়ে আশিক নিজে হামলা করার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, “আমার কলেজের শিক্ষার্থীদের সাথে ঝগড়া হলে তারা মারধর করে। তখন ঘটনা শুনে আমি সেখানে যাই এবং থামানোর চেষ্টা করি।”

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মাদ কামাল উদ্দীন বলেন,‘আমি ঘটনা জানতে পেরে সাথে সাথে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করেছি। আমরা তদন্ত করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।’ এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ হতে মামলা করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, শিক্ষার্থীরা যদি লিখিত অভিযোগ দেয় তাহলে আমরা সেই অনুযায়ী মামলা করার ব্যাপারে সিধান্ত নিবো।

এদিকে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বৃহষ্পতিবার রাত সাড়ে আটটায় মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা হামলাকারীদের পরিচয় শনাক্ত করে বিচারের দাবি জানিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ