ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্বা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি বলেছেন, অনুষ্ঠানে এমপি বাহার আরো বলেন, হত্যাকারীদের ক্ষমতা কখনো দীর্ঘস্থায়ী হয় না। জিয়া মানুষ হত্যা করে ক্ষমতায় এসেছে। জিয়ার হাত ছিল মানুষের রক্তে রঞ্জিত। খালেদা জিয়া অগ্নি সন্ত্রাস চালিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে। তাদের এদেশে রাজনীতি করার অধিকার নেই। আজ বিএনপি জনবিচ্ছিন্ন। আগামী নির্বাচনের আগে কুমিল্লায় বিএনপি খুঁজে পাওয়া যাবে না।

হাজী বাহার এমপি আরো বলেন, কুমিল্লা আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জ্বিবিত। আজ কুমিল্লার ঘরে আওয়ামী লীগ,যুবলীগ ,ছাত্রলীগ ,স্বেচ্ছাসেবক লীগ,শ্রমিক লীগ তৈরী হয়েছে। একসময় পকেট কমিটি দিয়ে কুমিল্লায় আওয়ামী লীগ চলেছে। আমরা দলের ত্যাগী-পরীক্ষিত কর্মীদের দিয়ে কমিটি গড়ব। আমরা নেতা বানাব মাস্তানী করার জন্য নয়,মানুষের জন্য কাজ করার জন্য,মানুষের মন জয় করার জন্য। নেত্রী যখন আমাকে মহানগর আওয়ামী লীগের দায়িত্ব দেয় তখন কথা দিয়েছিলাম ‘কুমিল্লাকে সারা দেশের সেরা সুসংগঠিত ও শক্তিশালী সংগঠন উপহার দিব’। কুমিল্লাকে আজ শেখ হাসিনার দূর্গ হিসেবে গড়ে তুলবো।

>>আরো পড়ুনঃ  সদর দঃ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি গোলাম সারওয়ার ও সাধারণ সম্পাদক হাজী রহিম

গতকাল রবিবার রাতে নগরীর বিষ্ণপুর-মৌলভীপাড়া ঈদগা মাঠে ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাজী বাহার এমপি এসব কথা বলেন।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী আরফানুল হক রিফাত এর সভাপতিত্বে ওই কর্মীসভায় সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এড.জহিরুল ইসলাম সেলিম, আবদুল আলিম কাঞ্চন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আবিদুর রহমান জাহাঙ্গীর, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হাই বাবলু, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক জিএস আবদুল্লাহ আল মাহমুদ সহিদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক সাদেকুর রহমান পিয়াস প্রমুখ।

এসময় আদর্শ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এড.আমিনুল ইসলাম টুটুুল,মহনগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু চিত্তরঞ্জন ভৌমিক,আইন বিষয়ক সম্পাদক এড.আমজাদ হোসেন,মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক শাহজাহান সাজু,উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহেরীন সাহের, সদস্য মিজানুর রহমান ইরান, সৈয়দ নূরুর রহমান,খোরশেদ আলম, কাইয়ুম খান বাবুল, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক হাবিবুল আল আমিন সাদি,মহানগর ছাত্রলীগের আহবায়ক আবদুল আজিজ শিয়ানুক সহ মহানগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ এলাকার বিভিন্ন পেশার বিপুল সংখ্যক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

>>আরো পড়ুনঃ  বুড়িচংয়ে রাজাপুর ইউনিয়ন বিএনপির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মহানগর আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক সাদিকুর রহমান রানা।
আলোচনা সভা শেষে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্বা আ.ক.ম বাহাউদ্দির বাহার এমপি জয়নাল আবেদিন জনি সভাপতি ও মোস্তাক আহমেদ মোহনকে সাধারন সম্পাদক করে কুমিল্লা মহানগর ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্যের কমিটির নাম ঘোষনা করেন। এসময় নেতা-কর্মীরা বিপুল করতালির মাধ্যেমে নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন জানান।

উল্লেখ্য,২০১৭ সালের জুন মাসে সদর আসনের এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারকে সভাপতি এবং আরফানুল হক রিফাতকে সাধারণ সম্পাদক করে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের পূনাঙ্গ কমিটি ঘোষিত হয়। এর পর থেকে কুমিল্লা মহানগরীতে আওয়ামী লীগের নব উদ্যেমে সাংগঠনিক কর্মকান্ড পরিচালিত হয়ে আসছে। ইতিমধ্যে মহানগর ছাত্রলীগ ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করে সাংগঠনিক ভীত মজবুত করেছে। বিভিন্ন জাতীয় দিবস সহ কেন্দ্রিয় সকল কর্মসূচি সুচারুভাবে পালন করে নতুন সাংগঠনিক ইউনিট কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগ বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। কমিটি ঘোষনার প্রায় ২ বছর পর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কমিটি সম্মেলনের মাধ্যেমে করতে যাচ্ছে সংগঠনটি। শোকের মাস আগস্ট শেষে হতেই গতকাল ১ সেপ্টেম্বর রবিবার থেকে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগে সম্মেলন শুরু হয়। ইতিমধ্যে ৬ টি ওয়ার্ডের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারন করা হয়েছে।