কুমিল্লার সদর দক্ষিণে প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার লালমাই এলাকার এক প্রবাসীর বাড়িতে দূর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা সংঘটিত হয়েছে। এসময় ডাকাতরা নগদ ৬লাখ টাকা ও ১০ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়। ডাকাতের হামলায় আহত হয় প্রবাসীর অন্তস্বত্তা স্ত্রী শারমিন আক্তার(২২)।

শুক্রবার দুপুরে সৌদিআরব প্রবাসী বিল্লাল হোসেনের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।
প্রবাসী বিল্লাল হোসেনের বাবা মো: মিজানুর রহমান জানায় দুপুরে বাড়িতে বিল্লালের স্ত্রী শারমিন আক্তার ছাড়া কেউ ছিলেন না, এসময় ৩জন ঘরে প্রবেশ করে বিল্লালের স্ত্রী শারমিন আক্তারকে লাথি দিয়ে ফেলে দেয় এবং চাপাতি দিয়ে হাতে আঘাত করে। আহত শারমিনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
তিনি জানান, ডাকাতরা ঘরের আলমারিতে রাখা ৬লাখ টাকা ও অন্তত ১০ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়।

এদিকে শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় বারোপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সেলিম হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন।

বিল্লালের ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, তার মেঝো ভাই সৈকত বিদেশ যাবার জন্য ৬লক্ষ টাকা সংগ্রহ করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার ইউনিয়ন ব্যাংক থেকে একলক্ষ টাকা উত্তোলন করা হয়, বাকী টাকা ধার দেনা করে সংগ্রহ করা হয়েছিল। এঅবস্থায় সৈকতের বিদেশে যাওয়া অনিশ্চিত হয়ে গেল।

সাইফুল জানান, দুপুরে জুমার নামাজের পর বাড়ি ফিরছিলাম। এসময় ফারুক আমাকে জানায়, বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ৩জন লোক বাড়িতে ঢুকেছে বলে আমি জানতে পেরেছি। তারা একটি কালো মাইক্রোবাসে করে এসেছিল। বাড়ির জমিজমা ও বিষয় সম্পত্তিকে কেন্দ্র করে চেনা পরিচিত কেউ এ কাজ করেছে বলে আমরা ধারণা করছি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় ফারুক জানান, দুপুরে হঠাত শারমিন ভাবিকে চিতকার করতে দেখি। গিয়ে দেখি তিনি পড়ে আছেন, আলমারি, ওয়াড্রোব খোলা, কাপড়-চোপড় এলোমেলো পড়ে আছে।
এদিকে এঘটনায় বিল্লালের পিতা মিজানুর রহমান জানান, মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ