নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) শাখার অভিযানে জেলার ব্রাহ্মণপাড়ার উপজেলার বিকাশ পরিবেশক মো: শাহজাহানের কোটি টাকা আত্মসাৎকারী সুপারভাইজার মো: সাইফুল ইসলাম (৩০) কে ঠাকুরগাও থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতারক সাইফুল ইসলাম জেলার ব্রাহ্মনপাড়া উপজেলার গোপালনগর গ্রামের বজলু মিয়ার পুত্র। তাকে গ্রেফতারের পর গত দুই দিনে তাকে নিয়ে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে ২০ লাখ ৯৩ হাজার টাকা।

সোমবার সাইফুলকে আদালতে সোপর্দ করার পর ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত তার ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে। বর্তমানে ডিবি হেফাজতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মঙ্গলবার রাতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ডিবির এস আই আনোয়ার হোসেন।

মামলার অভিযোগ ও ডিবি সূত্রে জানা যায়, ব্রাহ্মণপাড়ার বিকাশ পরিবেশক শাহজাহানের প্রতিষ্ঠানে সুপারভাইজার পদে কর্মরত ছিলেন সাইফুল। সে প্রতিদিন বুড়িচং ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বিভিন্ন বিকাশের ডিএসওদের সাথে টাকা আদান প্রদান করতো এবং এজেন্টদের মার্কেট তদারকী করতো। গত ১৮ মার্চ মামলার বাদী শাহজাহান ময়নামতি এনআরবিসি ব্যাংক থেকে চেকের মাধ্যমে ৩কোটি ২৫ লাখ টাকা উত্তোলন করে সেই টাকা থেকে ডিএসওদের দেয়ার জন্য সাইফুলকে ৭০ লাখ টাকা প্রদান করেন। ওই টাকা থেকে প্রতারক সাইফুল ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার টাটেরা এলাকার ডিএসও বিল্লাল হোসেনকে ১১ লাখ ৩০ হাজার প্রদান করেন। অবশিষ্ট ৫৮ লাখ ৭০ হাজার টাকা সে ফেরৎ দেয়নি। এছাড়াও ওই প্রতারক গত ১৫ মার্চ থেকে ১৭ মার্চ বিভিন্ন এজেন্টদের নিকট থেকে আরও ৫১ লাখ ৩০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। এদিকে তার বিরুদ্ধে মোট ১ কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে ব্রাহ্মণপাড়া থানায় মামলা দায়ের করার পর মামলাটি তদন্ত শুরু করেন ডিবির এসআই আনোয়ার হোসেন।

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এসআই আনোয়ার হোসেন ডিবির একটি টিম নিয়ে গত গত ৪ মে রাতে সাইফুলকে ঠাকরগাঁও জেলা সদর থেকে গ্রেফতার করেন। পরে তাকে নিয়ে গত ২ দিনে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে আত্মসাৎকৃত টাকার মধ্যে ২০ লাখ ৯৩ হাজার টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হন। মামলার তদন্তকারী ওই কর্মকর্তা জানান, অবশিষ্ট টাকা উদ্ধার ও এ চক্রের সাথে জড়িত অন্যান্যদের আটক করতে সাইফুল কে ২ দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।