কুমিল্লায় পুলিশের সোর্স নিহত, অটোচালকের লাশ উদ্ধার

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লায় পৃথক ঘটনায় বিল্লাল নামে একজন পুলিশের সোর্সকে ছুরিকাঘাতে এবং আলী আশরাফ নামে এক অটোচালককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগাঁহ মাঠের পেছেনে এবং ডুমুরিয়া চাঁনপুর এলাকায় এ দুটি ঘটনা ঘটে।

নিহত বিল্লাল হোসেন (৩০) নগরীর জামতলা এলাকার ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে ও আলী আশরাফ (২৮) মুরাদনগর উপজেলার বাবুটিপাড়া গ্রামের মৃত হুজুরা মিয়ার ছেলে। তিনি পরিবার নিয়ে নগরীর কালিয়াজুড়ি এলাকায় ভাড়া থাকতেন।

পুলিশ জানায়, বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগাহর পেছনে সিএনজি স্ট্যান্ডের পশ্চিমপাশে বিল্লাল হোসেনকে ছুরিকাঘাত করলে তার চিৎকারে টহলরত পুলিশ এগিয়ে গিয়ে ধাওয়া করে হৃদয় নামে এক যুবককে আটক করে।

ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত বিল্লালকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের স্ত্রী হামিদা আক্তার জানান, তার স্বামী আগে স্বর্ণ কারিগর হিসেবে কাজ করলেও বেশ কিছু দিন ধরে তিনি পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার এএসআই শাওন দাস জানান, আটক হৃদয় ছিনতাইকারী। তিনি নগরের কাপ্তানবাজার এলাকার মেহেদী হাসানের ছেলে, তাকে ঘটনাস্থল থেকে ধাওয়া করে আটক করার পর হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, মরদেহ মর্গে নেয়া হয়েছে।

অপর ঘটনায় নগরীর চাঁনপুর কেরানীবাড়ির পাশে পুরনো গোমতীর নদীর পাড়ে আলী আশরাফ নামে এক অটোচালককে দুর্বৃত্তরা গলা কেটে হত্যা করেছে।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আবদুল্লাহ আল-মামুন জানান, হত্যাকাণ্ডের কারণ এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

সূত্রঃ যুগান্তর

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ