কুমিল্লার চান্দিনায় দু’পক্ষের সং’ঘর্ষে এক যুবক নি’হত হয়েছেন। তার নাম মনির হোসেন (২৭)। সোমবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি মা’রা যান।

নিহত মনির হোসেন চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া ইউনিয়নের ছোট কলাগাঁও গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বাসার (২৫) ও রাকিব (২০) নামে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে চান্দিনা থানা পুলিশ।

আটকৃত বাসার একই ইউনিয়নের বড় কলাগাঁও গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে ও অপরজন রাকিব আব্দুস ছালামের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ৫ মার্চ বৃহস্পতিবার মনির হোসেন তার সবজি ক্ষেতে পানি দেয়ার সময় হাসিব, শাহজালাল ও আরাফাতের সাথে বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। ওই ঝামেলার জের ধরে সন্ধ্যায় বড় কলাগাঁও এর ১৫/২০ জন যুবক ছোট কলাগাঁও এসে মনিরদের বাড়িতে হা’মলা চালায়। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এতে প্রতিপক্ষের দায়ের কো’পে মারা’ত্মক আহত হন মনির। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে দ্রুত ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোরে তিনি মা’রা যান।

চান্দিনা থানার ওসি মোঃ আবুল ফয়সল বলেন, দুই পক্ষের সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বৃহস্পতিবার হামলার ঘটনায় শুক্রবার মনিরের চাচা মোহাম্মদ আলী আটজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞতনামা আরো ছয়জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় দু’জনকে ইতোমধ্যে আটক করা হয়েছে।

ওসি আরো বলেন, যেহেতু মনিরের মৃ’ত্যু ঘটেছে ওই মামলায় এখন হ’ত্যা মামলার ধারা যুক্ত হবে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।