ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য পদে একজন মৃত ব্যক্তির নাম উঠেছে। ২০ অক্টোবর অনুমোদিত কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ আইয়ুব আলী চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি থাকা অবস্থায় গত ১৫ ফেব্রুয়ারি ইন্তেকাল করেন। মৃত ব্যক্তিকে কমিটিতে রাখায় চলছে সমালোচনা।

দলীয় সূত্র জানায়, সারাদেশে চলমান আওয়ামী লীগের শুদ্ধি অভিযানের অংশ হিসেবেই কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সঙ্গে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের গত ১৪ অক্টোবর ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ওই সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০ অক্টোবর রাতে ২৮ সদস্যের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি অনুমোদন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

অনুমোদিত প্রস্তুতি কমিটির ২৬নং সদস্য চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আইয়ুব আলী আট মাস আগে ইন্তেকাল করেন।

প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব অধ্যক্ষ হুমায়ুন মাহমুদ বলেন, ‘রবিবার রাতে কমিটি হাতে পাওয়ার পর বিষয়টি নজরে এসেছে। আমাদের জেলা আওয়ামী লীগতো হাওয়ায় হাওয়ায় জেলা আওয়ামী লীগ। একজন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্যের মৃত্যুর পর যদি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে না জানায়, তাহলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দোষ কোথায়? আর এই কমিটি চূড়ান্ত করার আগে খসড়া আমাদেরকে দেখানো হলে হয়তো এ অনাকাঙ্ক্ষিত ভুল হতো না।’

তিতাস মেঘনা উপজেলার কোনো সদস্য না থাকা প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমাদের কাছ থেকে খসড়া তালিকা নিয়ে করলে হয়তো এ দুই উপজেলার কেউ না কেউ থাকতো। আমরা আজ (সোমবার) চেষ্টা করবো বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে দেখা করে বিষয়টি সংশোধন করার।’

জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল আওয়াল সরকার অসুস্থ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া যায়নি।