ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লায় মহাসড়কের পাশে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের জায়গা দখল করে বিপুলসংখ্যক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হয়েছে। মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলার নিমসার বাজারে সওজের কয়েক কোটি টাকা মূল্যের জায়গা বেদখল করে এসব স্থাপনা তৈরি করা হয়। এতে ওই বাজারের পাশে জুনাব আলী কলেজ ও একটি হাইস্কুলসহ বেশ

কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা নানামুখী সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। এ ছাড়া মহাসড়কে ওই এলাকায় প্রতিনিয়তই যানজটের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে এলাকাবাসীর ব্যাপক অভিযোগের পরিপ্র্রেক্ষিতে দফায় দফায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে সওজ এবং প্রশাসন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে ১০ বছরেও এসব অভিযান কোনো সফলতার মুখ দেখেনি। সব শেষ মঙ্গলবার সকালে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তা পুনরায় বেদখল হয়ে যায়। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

>>আরো পড়ুনঃ  বুড়িচংয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক গুলো খানাখন্দে ভরা, জন দূর্ভোগ চরমে

স্থানীয়রা জানায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার নিমসার বাজারকে কেন্দ্র করে এলাকার প্রভাবশালীরা মহাসড়কের জায়গা দখল করে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলে। রাজনৈতিক আশ্রয়ে এসব প্রভাবশালী সওজ কিংবা প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করেই বছরের পর বছর সেখানে কাঁচাবাজার এবং আড়ত পরিচালনা করে আসছে। এতে ওই সড়ক দিয়ে যানজটসহ যান চলাচলে নানা ভোগান্তির শিকার হতে হয়। এলাকাবাসী ওই অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদের দাবি জানালে ১০ বছরে বেশ কয়েকবার উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে প্রশাসন এবং কুমিল্লা সড়ক বিভাগ।

এলাকাবাসী জানায়, প্রতিবারই উচ্ছেদের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তা বেদখল হয়ে যায়। আর উচ্ছেদের নামে সরকারের কোষাগার থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করা হয়। সবশেষ মঙ্গলবার মহাসড়কের নিমসার বাজারে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে কুমিল্লা সড়ক বিভাগ ও জেলা প্রশাসন। তবে এ অভিযান নিয়ে শুরুতেই স্থানীয়দের মাঝে নানা বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। সড়ক বিভাগ ৫০ ভাগ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবি করলেও রহস্যজনক কারণে ওই বাজারে নামেমাত্র কয়েকটি দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। সকাল ১০টা থেকে অভিযান পরিচালনা করার কথা থাকলেও দুপুর ১২টার পর অভিযান শুরু করা হয়। মাত্র ৪৫ মিনিটের মধ্যে অজ্ঞাত কারণে অভিযান বন্ধ করে দেয়া হয়। ভেঙে দেয়া সব স্থাপনা বিকালেই নির্মাণ করে পুনরায় দখল করে নেয়া হয়। অভিযানে উপস্থিত ছিলেন- নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনি রায়, তাহমিদা আক্তার, নায়িমা ইসলাম, সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী তরিকুল ইসলাম। এ ছাড়া হাইওয়ে থানা এবং বুড়িচং থানা পুলিশ।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লা নগরীর গুরুত্বপূর্ণ অনেক জায়গা, সিটিতে আছে করপোরেশনে নেই!

কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী জাফরুল হায়দার বলেন, নিমসার বাজারে মঙ্গলবার অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এতে ওই বাজারের ফুটপাত দখলমুক্ত করে অভিযান সমাপ্ত করা হয়। শিগগিরই বাকি দখলদারদের উচ্ছেদ করতে পুনরায় অভিযান পরিচালনা করা হবে।

সূত্রঃ যুগান্তর