কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ-উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুসহ এ সংক্রান্ত আর কোনো তথ্য মিডিয়ায় দেওয়া হবে না। জেলা কভিড ব্যবস্থাপনা কমিটি ভার্চুয়াল বৈঠকের মাধ্যমে নতুন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। বুধবার (১৯ আগস্ট) রাতে কুমেক হাসপাতালের কভিড ইউনিটের চিকিৎসক ইশতিয়াক জামান চৌধুরী এক ইমেইল বার্তায় এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ‘কুমিল্লা জেলা কভিড ব্যবস্থাপনা কমিটির নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০ আগস্ট থেকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ থেকে আর কোনো খবর কোনো ধরনের মিডিয়ায় দেওয়া হবে না। কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন থেকে কভিড সংক্রান্ত কোনো খবর জানতে হলে জেলা প্রশাসক অথবা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে সংগ্রহ করার জন্য অনুরোধ করা গেল।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুজিবুর রহমান বলেন, মূলত তথ্য বিভ্রান্তি এড়াতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রায় সময় দেখা যায় আমাদের তথ্য এবং জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য মিলে না। কারণ এখানে (কুমেক হাসপাতালে) উসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া অনেকের নমুনা পজিটিভ আসে। সেটি আবার দু’দিন পর সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে জানানো হয়। ফলে করোনা পজিটিভ এবং উপসর্গে মারা যাওয়া নিয়ে একই ব্যক্তির তথ্য দুই জায়গায় আসে। এ নিয়ে বিভ্রান্তি হয়। সেটি এড়াতেই এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

করোনা সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য জানাতে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়কে ফোকাল পয়েন্ট করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সূত্র মতে মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) রাতে কুমিল্লা জেলা কভিড ব্যবস্থাপনা কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সিনিয়র সচিব জিয়াউল আহসানের সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর, জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুজিবুর রহমান, জেলা সিভিল সার্জন ডা. নিয়াতুজ্জামানসহ জেলা কভিড ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যরা।

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: