আসন্ন চান্দিনা পৌরসভা নির্বাচনে এক কাউন্সিলর প্রার্থীকে বিজয়ী করে দেওয়ার বিনিময়ে চাঁদা চেয়ে আটক হয়েছেন এক ভুয়া সিআইডি কর্মকর্তা।
কুমিল্লার চান্দিনা পৌরসভা নির্বাচনে ২নং ওয়ার্ড থেকে স্থানীয় বিএনপি’র সমর্থন নিয়ে সাধারণ কাউন্সিলর পদে লড়ছেন মাসুদ রানা। মাত্র পঁচিশ বছর বয়সী এ তরুণ প্রার্থী নির্বাচনে বিজয়ী হতে বেশ তৎপরভাবে নেমেছেন। এলাকার প্রতিটি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ভোট প্রার্থনা করছেন তিনি।

বিরোধীদলের সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা কম, কৌশলেই বিজয়ী হতে হবে এমন নানা প্রলোভন দেখাতে শুরু করেছেন এক সিআইডি কর্মকর্তা। নানা প্রলোভন দেখিয়ে প্রার্থী মাসুদ রানাকে অনেকটা ঘায়েল করে ফেলেন।

প্রার্থীর সঙ্গে গোপন আলাপ করতে শনিবার (২ জানুয়ারি) চান্দিনায় ছুটে আসেন ওই সিআইডি কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন মঞ্জু। চান্দিনার একটি রেস্টুরেন্টে এসে প্রার্থী মাসুদ রানাকে ফোন করে এনে আরো বিস্তারিত বলে ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এতেই সন্দেহ জাগে প্রার্থী মাসুদ রানার।

সঙ্গে সঙ্গে ওই সিআইডি কর্মকর্তাকে আটক করে খবর দেন চান্দিনা থানা পুলিশকে। খবর পেয়ে চান্দিনা থানা পুলিশ চান্দিনা বাজারের আল মদিনা হোটেল থেকে তাকে আটক করার পর জানা যায় ভুয়া ওই সিআইডি কর্মকর্তা প্রতারক। প্রতারণার ফাঁদে ফেলে সিআইডি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে চাঁদা আদায় করতে এসেছিল।

আটক প্রতারক মোশারফ হোসেন মঞ্জু (২৬) কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার পশ্চিমসিংহ গ্রামের মো. নজরুল ইসলামের ছেলে। সে চান্দিনা উপজেলার পার্শ্ববর্তী এলাকা দেবীদ্বারের বড়কামতা গ্রামের ভাড়ায় বসবাস করেন।

চান্দিনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসউদ্দীন মোহাম্মদ ইলিয়াছ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ওই প্রতারক ভুয়া সিআইডি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রার্থী মাসুদ রানার কাছ থেকে অর্থ আদায়ের চেষ্টা করেছিল। প্রার্থী মাসুদ রানা বিষয়টি বুঝতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।
এ ঘটনায় শনিবার রাতে বাদী মাসুদ রানা বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: