নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার চান্দিনায় শ্রেণি কক্ষে ছাত্রদের চুল কেটে দেয়ার অভিযোগে মো. ইউনুছ নামে এক শিক্ষককে স্কুল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। মো. ইউনুছ চান্দিনা সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন শিক্ষক। রবিবার (৭ এপ্রিল) বিদ্যালয়ের স্টাফ মিটিংয়ে ওই শিক্ষককে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। তিনি ওই বিদ্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের খন্ডকালীন শিক্ষক।

বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শনিবার (৬ এপ্রিল) সকাল সোয়া ১১টায় সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের অনেকের চুল বড় থাকায় নিজ হাতে এলোমেলো ভাবে চুলে কেটে দেন শিক্ষক ইউনুছ। পরবর্তীতে অষ্টম, নবম ও দশম শ্রেণীর অন্তত ৪০জন শিক্ষার্থীদেরও একই ভাবে চুল কেটে দেন। ওই ঘটনায় শিক্ষার্থীরা স্কুলের প্রধান ফটক বন্ধ করে বিক্ষোভ করে এবং প্রধান শিক্ষক বরাবর লিখিত অভিযোগ করে।

>>আরো পড়ুনঃ  নগরীর হাজী আক্রাম উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

অভিযুক্ত শিক্ষক ইউনুছ মিয়া জানান, মূলত বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষকদের নির্দেশেই আমি ছাত্রদের চুল কেটে দেই।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. এমদাদুল হক জানান, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের চুল কেটে অপমান করার দরকার ছিল না। শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের অভিযোগের ভিত্তিত্বে বিদ্যালয়ের স্টাফ মিটিং করে তাকে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এসএম জাকারিয়া জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখবো।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ