কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে ইউপি চেয়রাম্যানের লাঠিয়াল বাহিনীর হামলায় অন্তত ৬ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার হেসাখাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জালাল আহমেদ ভূঁইয়ার লাঠিয়াল বাহিনীর বিরুদ্ধে এ হামলার অভিযোগ উঠেছে।

রোববার ওই ইউপির আজিয়া পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, ওই গ্রামের মুসলিমুর রহমানের ছেলে মোঃ উল্ল্যাহ স্বপন(৩৫), মোঃ নাছির (৪০), স্ত্রী বামুমতি (৫৫) , মৃত.আব্দুর রহমানের ছেলে আরবের রহমান (৪৫), তৈয়বের রহমানের ছেলে সোহেল (২৬) ও আনোয়ার হোসেনের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী সাজেদা আক্তার (২৩)।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত কয়েক ধরে হেসাখাল ইউপির আজিয়াপাড়া গ্রামে ব্যক্তি মালিকানা একটি পুকুর থেকে মাটি কেটে বিক্রি করে আসছেন চেয়ারম্যান জালাল আহমেদ ভূঁইয়া। পুকুরে মাটি কাটতে কাটতে স্থানীয়দের বাড়ির কাছাকাছি চলে আসে। এতে পুকুর পাড়ে বসবাসরত লোকজন তাদের বাড়ি ঘর বিলীন হওয়ার আশঙ্কায় বাড়ি ঘর বাঁচাতে পুকুরে মাটি কাটা অবস্থায় বাধা দিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানের লাঠিয়াল বাহিনী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালিয়ে অন্তত ৬ জনকে আহত করে। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান জালাল আহমেদ ভূঁইয়া মুঠোফোনে বলেন, তাদের বাড়ির পাশের পুকুরে আমার লোকজন মাটি কটছে। এ সময় বাঁধা দিয়ে আমার লোকজনের ওপর হামলা চালায়।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার (ওসি) মোঃ বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সূত্রঃ প্রতিদিনের সংবাদ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: