কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার আদ্রা দক্ষিণ ইউপির পুজকরা পূর্ব পাড়া একটি ব্রিজের পাশে সরকারি পরিত্যক্ত জায়গায় পাকা ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এরপরও প্রশাসন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। স্থানীয়রা বলেন, পুজকরা গ্রামে সরকারি পরিত্যক্ত জায়গার মধ্যে ৩ শতক জমিতে পাকা ঘর নির্মান করছে প্রবাসী নুর মোহাম্মদের স্ত্রী আমেনা বেগম। এখানে একটি ছোট ব্রিজ রয়েছে। বর্ষাকালে এখান দিয়ে পানী চলাচল করে। কিন্ত পাকা ঘর নির্মান করার পানী চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। যে কোন সময় পানীতে তলিয়ে যাবে ফসলী জমি ও বসত ঘর। হুমকিতে রয়েছে পুরো এলাকা।

বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পরিত্যক্ত জায়গার মধ্যে ৩ শতক জায়গায় মাটি ভরাট করা হয়েছে। কংক্রিটের পিলার নির্মাণ করা হয়েছে। ঢালাইয়ের কাজের জন্য পিলারের ওপরে রড বসানো হয়েছে।

স্থানীয় নুরুজ্জামান, নুরুর রহমান, কামাল, ইব্রাহিম বলেন, এখান দিয়ে পানিনিষ্কাশনের একমাত্র পথ ছিল । একটি ছোট ব্রিজ রয়েছে। দিন দিন এসব জায়গা দখলের কারণে এখন সরকারি জায়গাটি কাগজপত্রে থাকলেও বাস্তবে নেই।

সরকারি জমি দখল হলেও প্রশাসনের নজরদারি নেই। তাঁরা প্রভাবশালী হওয়ার কারণে কেউ কাজে বাধা দিতেও সাহস পাচ্ছেন না।

এ বিষয়ে সরকারি জমি দখল কারী নুর মোহাম্মদকে পাওয়া যায়নি। তবে তার স্ত্রী আমেনা বেগম বলেন- সরকারি জায়গা দখল করলে আপনাদের কি? প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে কাজ করছি। এছাড়া এখানে ১৬ শতক জায়গার মধ্যে থাকার জন্য পাকা ঘর নির্মান করছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মিল্টল বিশ্বাস বলেন খোঁজ নিয়ে দেখছি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: