বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় ছাত্রলীগের ছিলো গৌরবোজ্জ্বল অবদান – এমপি বাহার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে কুমিল্লায় পালিত হয়েছে ছাত্রলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। কুমিল্লা ভিক্টেরিয়া কলেজ ডিগ্রি শাখায় নব নির্মিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।

কুমিল্লা ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের নবীনদের সাথে অংশ নেয় ছাত্রলীগের প্রায় অর্ধশত সাবেক ছাত্রলীগ কর্মীদের অংশগ্রহনে মিলন মেলায় পরিনত হয় অনুষ্ঠানটি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি বাহার বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করে এই বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় ছাত্রলীগের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল অবদান। মুক্তিযুদ্ধে ছাত্রলীগের ১৭ হাজার কর্মী শহীদ হয়েছিলেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিষ্ঠিত ছাত্রলীগ আজকে সারা বাংলাদেশে সু-প্রতিষ্ঠিত। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা এবং শেখ হাসিনা ঘোষিত ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় কাজ করছে নিবেদিত প্রাণ কর্মীরা। এমপি বাহার বলেন- আজকে এই প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে আমি ছাত্রলীগের সাবেক বর্তমান সকল কর্মীদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে কুমিল্লায় র‌্যালী আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করেছে কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কুমিল্লা জেলা শাখার আয়োজনে বৃহস্পতিবার সকালে কুমিল্লা টাউন হল মাঠ থেকে র‌্যালী বের হয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ডিগ্রী শাখায় এসে শেষ হয়। কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের নিয়ে ভিক্টোরিয়া কলেজের বঙ্গবন্ধুর ম্যুারালের পাদদেশে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগের আহবায়ক এ কে এম আজিজ সিহানুর সভপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাবেক ছাত্রলীগ কর্মী মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হাসান পাখি, কুমিল্লাা মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত, কুমিল্লাা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম টুটুল, কুমিল্লা জেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মুহমুদ সহিদ, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুর রহমান জুয়েল, মহানগর আওয়ামীলীগের ক্রীড়া সম্পাদক আনিসুর রহমান মিঠু, ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সায়েম।

সবেক নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা মফিজুর রহমান বাবলু, এডভোকেট রুস্তম আলী, নাজমুল হাসান পাখি, এড. জহিরুল ইসলাম সেলিম, অধ্যাপক কাজি আবুল বাশার, আলকাছুর রহমান, গোলাম মাওলা জসিম, আব্দুল আলিম কাঞ্চন, কাজী মোজাম্মেল হক, আব্দুল আই বাবলু, সাদেকুর রহমান রানা, শাহিনুল ইসলাম শাহিন, জাকির হোসেন, পার্থ সারথি দত্ত, চিত্ত রঞ্জন ভৌমিক সঞ্জয় কুমার রায়, একেএম হাসান ইমাম, এনামুল হক এনাম, আবুল কালাম আজাদ, শাহিন খান, সরকার মাহমুদ জাবেদ, মোখলেছুর রহমান, হাফিজুর রহমান শাকিল, শামসুর রহমান রঞ্জন, শামীমা রহমান দিপ্তী, মীর মোতালেব রিপন, জহিরুল ইসলাম রিপন, আহাম্মেদ নিয়াজ পাভেল, শোয়েব চৌধুরী মিঠু, জিয়াউল হক মুন্না, আনোয়ার হোসেন মিঠু, এস এম সাইফুল আলম, মোবারক আলী, জহিরুল ইসলাম রিন্টু, মোঃ জালাল উদ্দিন, শাহাজাদা টুটুল, জালাল উদ্দিন ভূইয়া।

আলোচনা সভা শেষে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে কেক কাটেন এমপি বাহার। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান করে চিরকুট ব্যান্ডের শিল্পীবৃন্দ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করে মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক নুর মোঃ সোহেল ও জালাল উদ্দিন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ