শনিবার দুপুরে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার আবিদপুর গ্রামে দুপক্ষের মধ্যে ঘটা পূর্ব বিরোধের মিমাংসা বৈঠক শুরুর আগে সোহেল নামের এক ব্যবসায়ীর (২৮) উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। স্হানীয় লোকজন এগিয়ে এসে উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে প্রেরন করে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানা যায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার মোকাল ইউনিয়নের আবিদপুর গ্রামে পূর্ব বিরোধ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে দ্বন্দ চলিতেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সমাজের গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ আবিদপুর বাজারে শনিবার দুপুরে উভয় পক্ষের মিমাংসার লক্ষের এক সালিসি বৈঠক ডাকে এবং শনিবার ধার্য্য করে। কিন্তু বৈঠক বসার আধা ঘন্টা পূর্বে মোটর সাইকেলে যোগে ৩ জন সন্ত্রাসী ওই বাজারের নূরুল ইসলামের চায়ের দোকানের সামনে এসে ব্যবসায়ী সোহেলের (২৮) উপর ধারাল অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত ভাবে হামলা চালায়। এসময় বাজারের অপর ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন, আরিফ হোসেন সহ অন্যান্যরা উদ্ধার করার জন্য এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা মোটর সাইকেলে ফেলে পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীরা হলো একই এলাকার মৃত কবির হোসেনের ছেলে সোহেল (২০),ও ইব্রাহিম খলিল এর ছেলে নয়ন (২০)।

পরে স্থানীয় বাজারের ব্যবসায়ীরা আহত সোহেল কে উদ্ধার করে প্রথমে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরন করে।

খবর পেয়ে বিকালে বুড়িচং থানার দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির এস আই এনামুল হক সঙ্গীয় ফোর্স সহ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত ফেলে যাওয়া মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

রাত ৮ টায় এ রিপোর্ট লেখার সময় পুলিশ জানান এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

এ ব্যপারে দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির এস আই মোঃ এনামুল হক বলেন খবর পেয়ে আমি পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। ঘটনাস্থল থেকে হামলায় ব্যবহার করা মোটর সাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ ফাঁড়িতে আনা হয়েছে। এ ঘটনার বিষয়ে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: