বুড়িচংয়ে সন্ত্রাসীদের ভয়ে নিজের বাড়ীতে ফিরতে পারছেন না বৃদ্ধ আবুল কাশেম, প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

জে.এইচ বাবুঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়নের জগতপুর গ্রামে সন্ত্রাসীদের ভয়ে নিজের বশত ভিটিতে ফিরতে পারছেন না বৃদ্ধ আবুল কাশেমের পরিবার। স্ব-পরিবারে হামলার শিকার হয়েও মিথ্যা মামলার আসামী হয়েছেন তিনি। প্রতিকার চেয়েছেন গ্রামবাসীদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। রোববার দুপুরে উপজেলার জগতপুর গ্রামের মাঝি সমাজের আয়োজনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আবুল কাশেম (৬০) লিখিত অভিযোগে বলেন, জগতপুর দক্ষিন-পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত সুলতান আহাম্মদের ছেলে টুনু মিয়া ও ফজল মিয়া দীর্ঘদিন যাবত আবুল কাশেমের মালিকীয় সম্পত্তি জোর পূর্বক দখল করে রেখেছেন। এ বিষয়ে নিম্ন আদালতসহ উচ্চ আদালতে একাধিক মামলা দায়ের করা হলেও সবকটি মামলার রায় আবুল কাশেমের পক্ষে আসে। আদালতের নির্দেশনা থাকার পরেও টুনু মিয়া ও ফজল মিয়া আবু কাশেমের ভূমির দখল না ছাড়ায় তিনি বুড়িচং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এতে টুনু মিয়া ও ফজল মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে ২৫/২৩ জনের একটি সন্ত্রাসীদল নিয়ে আবুল কাশেমের বাড়ীতে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদল বাড়ীতে আবুল কাশেমকে না পেয়ে তাঁর ছেলে এমরান হোসেন, আমির হোসেন, জমির হোসেন, পুত্রবধু নাসিমা আক্তার, বিউটি আক্তারকে কুপিয়ে মারত্মক ভাবে জখম করে। সন্ত্রাসীদল এসময় আবুল কাশেমের ঘর ভাংচুর করে লুটপাট চালায়।

স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিতে চাইলে সন্ত্রাসীদল তাঁদের বাঁধা দেয়। পরে বুড়িচং থানার এস আই ইয়াসিন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এ ঘটনার পর সন্ত্রাসীদল তাঁদের নিজেদের বাড়ীঘর ভাংচুর করে আবুল কাশেমের নামসহ ঐ এলাকায় প্রায় ৩০/৩৫ জনের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। বর্তমানে আবুল কাশেমের তিন ছেলে ও দুই পুত্রবধু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। এদিকে সন্ত্রাসী দলের প্রতিনিয়ত হুমকীর মূখে আবুল কাশেম বাড়ী ছাড়া হয়ে আছেন। আবুল কাশেম আরো বলেন, ৪দিন ধরে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা বাড়ী ছাড়া। সন্ত্রাসীরা যে কোন সময় আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করতে পারে। এ বিষয়ে আমি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করিছি।

সংবাদ সম্মেলনে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আবদুল কুদ্দুছ, আবু তাহের, আঃ বারেক মুহুরী, জাহাঙ্গীর আলম, আলি আশ্রাব, সোবহান মিয়া, মালেক মিয়া, রাশেদ মিয়া, কাউসার, নুরুল ইসলাম প্রমূখ। এলাকাবাসী তাঁদের বক্তব্যে বলেন, আবুল কাশেমের পরিবারের প্রতি যে অন্যায় করা হয়েছে আমরা তাঁর সুষ্ঠ বিচার দাবী করি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ