মুরাদনগর (কুমিল্লা) সংবাদদাতাঃ কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার সোনাকান্দা দরবার শরিফের বার্ষিক ওয়াজ ও ছাওয়াব মাহফিল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ডাকাতির কবলে পড়েছে দরবারের একদল ভক্ত। সংঘবদ্ধ ডাকতদল ভক্তদের হাত-পা বেঁধে তাদের বহনকারী একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সা, মোবাইল ফোন, নগদ অর্থ লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় ডাকাতদের পিটুনিতে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা, সাবেক ইউপি সদস্যসহ ছয় জন আহত হয়।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলার বাঙ্গরা থানাধীন খামার পাড়-দিঘিরপাড় সড়কের কাউন্নামোরী নামক স্থানে সিএনজি চালিত আটোরিক্সার গতিরোধ করে ডাকাতরা হামলা চালায়।

আহতরা হলেন, জেলার বি-পাড়া থানার মালাপাড়া ইউনিয়নের আলুয়া গ্রামের সিএনজির চালক সরু মিয়া, সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুল আলীম, সাবেক ইউপি সদস্য বারেক মেম্বার, সফিক, ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদিন ও তার ৬ বছরের ছেলে রাফি।

সিএনজি চালিত অটোরিক্সার মালিক নাইমুল হক জানান, আমার বাবা সরু মিয়া সিএনজির চালক হয়ে মঙ্গলবার দুপুরে বি-পাড়া থেকে পাচঁ জনকে নিয়ে মুরাদনগর উপজেলার সোনাকান্দা দরবারদরবার শরিফের বার্ষিক ওয়াজ ও ছাওয়াব মাহফিলে অংশন নেয়। মাহফিল থেকে রাতে বাড়ি ফেরার পথে মুরাদনগর উপজেলার খামার পাড়-দিঘিরপাড় সড়কের কাউন্নামোরী নামক স্থানে একদল ডাকাত একটি কাঠের চৌকী ফেলে গাড়ির গতিরোধ করে গাড়িতে থাকা সকলের হাত-পা বেঁধে মারধর করে যাত্রীদের সাথে থাকা নগদ অর্থ, মোবাইল ফোন ও সিএনজিটি লুট করে নিয়ে যায়। যাত্রিদের মধ্যে জয়নাল আবেদীনের লুকিয়ে রাখা মোবাইল ফোন থেকে ৯৯৯ নাম্বারে কল করলে বাঙ্গরা বাজার থানা পুলিশ এসে যাত্রীদের উদ্ধার করে। তিনি আরো বলেন এ ঘটনায় বাঙ্গরা বাজার থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষযে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি শুনেছি। লিখিত ভাবে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: