লাকসামে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ লাকসামে ডাক্তারের অপচিকিৎসায় আদম আলী নামে এক রোগী মৃত্যুর অভিযোগে বৃহস্পতিবার বিচার চেয়ে কুমিল্লা সিভিল সার্জনসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ প্রেরণ করা হয়েছে। মৃত. আদম আলী লাকসাম মিশ্রী গ্রামের মৃত. আশ্রাফ আলীর ছেলে ও জংশন বাজারের মোবাইল ব্যবসায়ি।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ২০ জুলাই আদম আলীকে লাকসাম আকবর-সামসুন মা ও শিশু ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়। ওই ক্লিনিকের শিশু ও সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা: খোরশেদ আলম ২০ হাজার টাকা চুক্তিতে আদম আলীর পিত্তথলীর অপারেশন করেন। অপারেশনের পরদিন থেকে রোগীর পাকস্থলি ফুলে যাওয়ায় চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করে রোগীর স্বজনরা। কিন্তু অপারেশনের ১৯দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না দেখে তারা জোরপূর্বক ছাড়পত্র নিয়ে গত ৮আগস্ট জেনারেল ও লেপারস্কপিক সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা: আনোয়ারুল হকের তত্ত্বাবধানে কুমিল্লা টাওয়ার হসপিটালে ভর্তি করেন। পরে ইউসিজি রিপোর্টে দেখা যায় অপারেশনের পর পিত্তথলি ও খাদ্যনালীতে কোন সেলাই কিংবা সংযোগ স্থাপন করা হয়নি। আশংকাজনক অবস্থা দেখে তাকে আইসিউ’তে ভর্তি করা হয়। অবস্থার আরো অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পরে ১৪ সেপ্টেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
ছেলে শাহজাহান দাবী করেন, লাকসাম আকবর-সামসুন মা ও শিশু ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ভুল অপারেশনে আমার বাবাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। সিভিল সার্জন ও প্রশাসনের নিকট আমি ওই চিকিৎসক এবং ক্লিনিকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কামনা করছি।
কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা: মুজিবুর রহমান বলেন, অভিযোগটি এখনো আমার টেবিলে আসেনি। অভিযোগ হাতে পেলেই তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ