কনকনে শীতের আবহে বরুড়ার হত দরিদ্র জনমানুষের দুর্ভোগও বাড়ছে। শীতে বৃদ্ধ-শিশুদের কষ্টতা স্বাভাবিকভাবেই বেশি হয়। দাম বেশি হওয়ায় অসহায় লোকজনকে শীতবস্ত্র ছাড়াই জীবনযাপন করতে হয়।

শীতার্ত কিছু মানুষের এমন দুর্দশা লাঘব করতে শুক্রবার আমড়াতলী উজ্জীবিত সংঘের উদ্যোগে ও আমড়াতলী এলাকার সাবেক শিক্ষার্থীদের সহযোগীতায় ৯নং দক্ষিন এবং ১০ নং উত্তর শীলমুড়ীর ১৮ টি গ্রামের প্রায় ৫৫০ পরিবারকে শীতবস্ত্র উপহার দিয়েছেন ।

শীতবস্ত্র বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন , আমড়াতলী উজ্জীবিত সংঘের প্রধান সমন্বয়ক তোফায়েল আহমেদ , বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমড়াতলী সি আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শাহ আলম বাবুল , আব্দুল হক মাস্টার , আবু তাহের মাস্টার , চেয়ারম্যান হাজী ফারুক , জলিল আহমেদ, জিয়াউল হক কাউসার , জয়নাল আবেদিন , মুজিবুল হক , জসিম উদ্দিন, যোবায়ের আহমেদ , শাহ জালাল আবুল , আবু ইউসুফ ,  শাহ জালাল মজুমদার , জাহাঙ্গীর হোসেন  সহ আরো অনেকে ।

মামুনুর রশিদ রাসেল এবং মো: কাজলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ দায়িত্বপালন করেন আবু এমরান , আবুল কালাম, কবির উদ্দিন বাবু , আবুল বাশার , এমরান হোসেন হেলাল , কৃষ্ণা দত্ত , তন্ময় সাহা তনু সহ এলাকার নিবেদিত তরুন প্রজন্ম ।

এলাকার একজন সাবেক শিক্ষার্থী জানান , ক্রয়ক্ষমতার বাইরে শীতার্ত ব্যক্তিরা না পারে পেট ভরে খাবার খেতে, না পারে কোনো অসুখ হলে চিকিৎসা করাতে। রাতের বেলায় দেখা যায় কীভাবে, কেমন করে শীতবস্ত্রবিহীন মানুষ কষ্টে রাত যাপন করছে। তাদের নেই কোনো শীত নিবারণ করার সম্বল। তাই এলাকার সকল সাবেক শিক্ষার্থীদের প্রচেষ্টায় এই শীতবস্ত্র বিতরন করা হয়েছে ।

সেই সাথে এলাকার প্রায় ১৪ টি মসজিদের সন্মানিত ইমাম এবং মুয়াজ্জিনকে শীত বস্ত্র উপহার দেয়া হয়েছে । এছাড়া ১৫ জন মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে শীত বস্ত্র উপহার দেয়া হয় ।

এসময় বক্তারা বলেন, এই শীতে হত দরিদ্র মানুষগুলোর চাহিদার কথা ভেবে সামাজিক সংগঠন আমড়াতলী উজ্জীবিত সংঘের এমন উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। আর এই মহতী উদ্যোগে সমাজের সকল সামর্থ্যবানদেরও এগিয়ে আসার জন্য সবার প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

শীত বস্ত্র বিতরন অনুষ্ঠানে এলাকার ১৯৯০ থেকে ২০১৯ সালে প্রায় সকল ‌ব্যাচের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন ।

 

 

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: