কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে আগুনে পুড়ে ছাই হলো মাছ বিক্রেতা শাহ আলমের বসত ঘর। আগুনে পুড়ে গেল ভোর রাতে পরিবারের সদস্যদের জন্য তৈরি করা সেহেরির খাবারও। খোলা আকাশের নিচেই রাত যাপন করলেন পরিবারের সদস্যরা।

ঋণের কিস্তি পরিশোধের আগেই সম্প্রতি নির্মিত বসত ঘর আগুনে পুড়ে যাওয়ায় সর্বস্বান্ত শাহ আলম এখন অসহায়।

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ঝলম (দ.) ইউপির ধিকচান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত।

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরের মালিক শাহ আলম জানান, তিনি ঘরে কবুতর পালেন। হঠাৎ কবুতরের পাখা ঝাপটানোর আওয়াজ মনে করে তিনি ঘর থেকে বের হন। বাইরে গিয়ে ঘরের টিনের চালার উপরে আগুন দেখতে পেয়ে চিৎকার দিলে প্রতিবেশীরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।

আগুনের লেলিহান শিখা ঘরের সিলিং এর উপর থাকা লাকড়িতে ধরলে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ঘরে থাকা আসবাবপত্রসহ পুরো বসত ঘর। এতে প্রায় পাঁচ লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি হওয়ার কথা জানান শাহ আলম।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি প্রতিবেদককে জানান, কয়েকমাস আগে সরকারি একটি সংস্থা থেকে কিছু ঋণ নিয়ে প্রায় ৩ লক্ষাধিক টাকা খরচ করে এ ঘরটি তৈরি করেন।

খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল রানা। তিনি পরিবারের সদস্যদের রাতের সেহেরির খাবার কেনার জন্য কিছু আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।

সূত্রঃ ইত্তেফাক

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: