কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল ও আওয়ামী লীগ কর্মী হরিপদ সাহা হত্যা মামলার চার আসামির পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক চন্দন কান্তি নাথ এ আদেশ দেন। আসামিরা হলেন- মামলার ৬ নম্বর আসামি মো. আশিকুর রহমান রকি, ৭ নম্বর আসামি আলম, ৮ নম্বর আসামি জিসান ও ৯ নম্বর আসামি মাসুম। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানার চকবাজার পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক কাইছার হামিদ সাংবাদিকদের এ সব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গত ২২ নভেম্বর নগরীর পাথুরিয়াপাড়া এলাকায় কাউন্সিলরের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুতে সন্ত্রাসীরা সৈয়দ মো. সোহেল ও তার সহযোগী হরিপদ সাহাকে গুলি করে হত্যা করে। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন আরও ৫ জন। এ ঘটনায় গত ২৩ নভেম্বর রাতে কাউন্সিলর সোহেলের ছোট ভাই সৈয়দ মো. রুমন বাদি হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৮-১০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

এ ঘটনায় গ্রেফতার ওই চার আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৭ দিন করে রিমান্ড চেয়ে পৃথক আবেদন করা হয়। সোমবার আবেদনের শুনানি শেষে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালত ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ জানায়, সোহেল ও হরিপদকে হত্যার সময় হিট স্কোয়াডে ছয়জন ছিলেন। এরই মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধে’নিহত হন মামলার প্রধান আসামি শাহ আলম, সাব্বির হোসেন ও সাজন। তবে এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন এ মামলার এজাহারনামীয় আসামি সোহেল ওরফে জেল সোহেল, সায়মন ও রনি।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনওয়ারুল আজিম জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার একাধিক টিম অভিযান চালাচ্ছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: