কুমিল্লায় চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীকে হোটেলে তিন দিন আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জেলার আদর্শ সদর উপজেলার বলেশ্বর গ্রামের জিন্নাত আলীর ছেলে নাজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের এ অভিযোগ করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষক নাজিমউদ্দিনকে গ্রেফতার করে বুধবার জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ ও ধর্ষিতার পরিবার জানায়, পেশায় স্বর্ণকার নাজিম ওই এলাকার দরিদ্র পরিবারের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক কিশোরীকে চাকরির প্রলোভন দেখায়। এরই মাঝে গত ১৭ সেপ্টেম্বর ওই কিশোরীকে কৌশলে কক্সবাজার নিয়ে যায় নাজিম। সেখানে একটি হোটেলে তিন দিন আটকে রেখে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

এক পর্যায়ে ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে ২০ সেপ্টেম্বর তাকে কুমিল্লায় নিয়ে এসে তার বাড়ির পাশে রেখে পালিয়ে যায় ধর্ষক নাজিম। পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে কিশোরীর পরিবার মঙ্গলবার রাতে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করে। এ সময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক নাজিমকে গ্রেফতার করে। বুধবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক জানান, অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পর জেলহাজতে পাঠানো হয়। ভুক্তভোগী কিশোরীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: