ডেস্ক রিপোর্টঃ শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে কুমিল্লা সদর আসনে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য মনোনয়নপ্রত্যাশী মাসুদ পারভেজ খান ইমরানের ছবি সংবলিত একটি বিতর্কিত পোস্টার নগরীর বিভিন্ন স্থানে লাগানো নিয়ে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। এ নিয়ে নগরীতে বেশ আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে অপপ্রচার চালাতে এ ধরনের বিতর্কিত পোস্টার লাগাতে পারে বলে দাবি করেন প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট আফজল খানপুত্র মাসুদ পারভেজ খান ইমরান সিআইপি।

জানা গেছে, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুর্গাপূজা উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা ইমরান খানের ছবি সংবলিত একটি পোস্টারে মা দুর্গার ছবি দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ছবির নিচের অংশে ছাপানো হয়। এ ধরনের পোস্টার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এনেছে দাবি করে কুমিল্লা মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি শিবু প্রসাদ রায়সহ নেতৃবৃন্দ মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করেন।

বুধবার দুপুরে নগরীর কুমিল্লা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে ইমরান খান বলেন, বিতর্কিত ওই পোস্টারের জন্য ওই সংবাদ সম্মেলনে আমাকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়, অন্যথায় আমার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। তিনি দুর্গা প্রতিমার ছবি উপরে ছাপানো একটি পোস্টার দেখিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, আমি এ পোস্টার ছাপিয়েছি, বিতর্কিত ওই পোস্টার সম্পর্কে আমার জানা নেই। এরপরও বিষয়টি যেহেতু নজরে এসেছে এজন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে তার প্রতিপক্ষরা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে এ ধরনের বিতর্কিত পোস্টার লাগিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে অহেতুক ক্ষোভের সৃষ্টি করে রাজনৈতিক ফায়দা লুটার অপচেষ্টা চালাতে পারে বলে তিনি দাবি করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার দেড় শতাধিক হোন্ডা বহরসহ নেতাকর্মীদের নিয়ে কালির বাজার এলাকায় ৫টি পূজামন্ডপ পরিদর্শনসহ সাধ্যমতো আর্থিক সহায়তা দিয়েছি। এ সময় আমাকে প্রতিপক্ষের লোকজনের বাধার মুখেও পড়তে হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কুমিল্লা জেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ তাপস কুমার বকশি, দফতর সম্পাদক অধ্যক্ষ সুভাষ চন্দ্র সরকার, কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আঞ্জুম সুলতানা সীমা, পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক নেতা পাপন পালসহ অন্যান্য নেতা।

সূত্রঃ জনকণ্ঠ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: