আসন্ন কুসিক নির্বাচন উপলক্ষে রোববার সকালে রিটার্নিং অফিসার কুমিল্লা জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের নিয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় হট্টগোল হয়। সভায় এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল।

মতবিনিময় সভায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও ঘোড়া প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা নিজাম উদ্দিন কায়সারের এক বক্তব্যকে কেন্দ্র করে সরকার সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীরা হট্রগোল শুরু করে দেয়। এ ঘটনা চলে প্রায় ১০ মিনিট। পড়ে সভার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

বক্তব্য রাখতে গিয়ে মেয়র প্রার্থী ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কুমিল্লা মহানগর সাবেক সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, ২০১৮ সাল প্রহসনের নির্বাচন হয়। রাতের ভোটে সরকার বিজয়ী হয়। আমরা সেই নির্বাচন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের কাছে আশা করি না। এমন সময় নগরীর ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মাসুদুর মাসুদ ও ৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী জমির উদ্দিন খান জম্পিসহ বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিবাদ করেন। তারা মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দীন কায়সারের কাছ থেকে মাইক্রোফোন নিয়ে নিতে নির্বাচন কমিশনের কাছে আহবান জানান ও হট্টগোল শুরু করেন। এ সময় কমপক্ষে দশ মিনিট ধরে বাকবিতন্ডা চলতে থাকে।

পরে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের আহবানে মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দীন কায়সার ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা শান্ত হন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও ঘোড়া প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, আপনারা দেখেছেন খোদ প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সামনে ক্ষমতাসীন দলের কাউন্সিলর প্রার্থীরা কি আচরণ করেছে। ভিন্নমত শোনার মত ধৈর্য্য তাদের নেই।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: