কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গড়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০ জন শিশু ভর্তি হচ্ছে। চিকিৎসকদের দাবি, সরকারিভাবে এ ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ না করায় শিশুরা সহজেই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রোটা ভাইরাস আক্রান্ত শিশুদেরকে নিয়ে অভিভাবকরা চিকিৎসাসেবা নিতে প্রতিদিন ভিড় করছে হাসপাতালে। আবার অনেকে তাদের সন্তানদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাচ্ছেন।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র নার্স সামছুন্নাহার সালমা বেগম জাগো নিউজকে জানান, প্রতিদিন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গড়ে ২০ জন শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। এছাড়াও মৌসুমি জ্বর ও টাইফয়েড জ্বরে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন গড়ে ১১ জনের মতো বয়স্ক রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. হাসিবুর রহমান জানান, ‘সরকারিভাবে রোটা ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ করা হচ্ছে না। রোটা ভাইরাসের টিকার দাম পড়ে ২২০০ টাকা। ফলে গরিব-অসহায় রোগীরা এ টিকা কিনতে পারেন না। তবে সরকারিভাবে টিকা প্রয়োগ শুরু হলে এ ভাইরাসের প্রকোপ কমে যাবে’।

এ ভাইরাসের কারণে অধিকাংশ শিশু ডায়েরিয়া, বমি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

সূত্রঃ জাগোনিউজ২৪

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: