কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত ১৬,১৭,ও ১৮ নং ওয়ার্ড মহিলা কাউন্সিলর নেহার বেগমকে ছুরিকাঘাতে হত্যা চেষ্টাকারী রুক্কু মিয়াকে কোতায়ালী থানার চকবাজার ফাড়ির পুলিশ আটক করে কোর্টে চালান করেছে।

রুক্কু মিয়া ২২ অক্টোবর সকালে সুজানগর পাথুরিয়াপাড়া সড়কে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে কাউন্সিলর নেহার বেগমকে হত্যার উদ্দেশ্যে পেছন দিক থেকে ঘারে এন্টিকাটার দিয়ে আঘাত করে। এতে নেহার বেগমের ঘাড় কেটে যায়।

পরবর্তিতে স্থানীয় মানুষ চিকিৎসার জন্যে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করলে সেখানে তার ঘাড়ে ৩০টি সেলাই লাগে। খবরপেয়ে ১৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মোঃ সোহেল তার লোকজন নিয়ে চকবাজার বাসষ্টেস্ড থেকে রুক্কু মিয়াকে ধরে চকবাজার পুলিশ ফাড়িতে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। ঘাতক রুক্কু মিয়াকে ধরে পুলিশে দেয়ায় এলাকাবাসী ও সচেতন মানুষ কাউন্সিলর সোহেলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ারুল হক সাংবাদিককে জানান, এই ব্যাপারে নেহার বেগম ৩২৬ ও ৩০৭ ধারায় একটি মামলা দায়ের করলে আসামী রুক্কু মিয়াকে কোর্টে চালান করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: