কুমিল্লার স্পেশালাইজ্ড অর্থোপেডিক ও জেনারেল হাসপাতাল কুমিল্লা ট্রমা সেন্ট্রারে সর্বাধুনিক ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড় নজরুল অ্যাভিনিউ সড়কের হাসপাতালটির নতুন ভবনে দশ শয্যার আইসিইউ ইউনিটের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি কুমিল্লা-৬ (আদর্শ সদর, সেনানিবাস, কুমিল্লা সিটিকর্পোরেশন) আসনের সংসদ সদস্য মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।

এর আগে বেলা ১১টায় আইসিইউ ইউনিটের উদ্বোধন উপলক্ষে ট্রমা সেন্টারের কনফারেন্স হলে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি বাহার বলেন, কুমিল্লা চিকিৎসা সেবায় আরেকটি নতুন সংযোজন হয়েছে। ট্রমা সেন্টারে আইসিইউ ইউনিট চালুর মাধ্যমে বৃহত্তর কুমিল্লাবাসী উপকৃত হবে। তিনি বলেন, কুমিল্লা ট্রমা সেন্টার অল্প সময়ে অনেক ডেভেলপমেন্ট করেছে। রোগীদের চিকিৎসা সেবায় তাদের আন্তরিকতা আছে। হাসপাতালের ডাক্তার নার্স সকলকে আরো আন্তরিক হতে হবে। সমাজের অসহায় দরিদ্র রোগীরা যাতে চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

কুমিল্লার চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নয়নে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন জানিয়ে তিনি বলেন, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে এক হাজার শয্যায় উন্নীতকরণ ও কলেজ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় জোর প্রচেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, কোভিড পরিস্থিতিতে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে আইসিইউ স্থাপন, হাই ফ্লু ন্যাজাল কেনেলা সংগ্রহে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি কুমিল্লার মানুষ ও চিকিৎসকেরা সহযোগিতা করেছে। সেজন্য কুমিল্লা কুমিল্লার ওই মানুষগুলোর প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। সকলের সম্মলিত প্রচেষ্টাতেই কুমিল্লাবাসী সহ বৃহত্তর কুমিল্লার মানুষ করোনায় চিকিৎসা সেবা পেয়েছে।

কুমিল্লা বিভাগ বাস্তবায়নের বিষয়ে তিনি বলেন, সকল সংকীর্ণতার উর্ধ্বে গিয়ে বিভাগ বাস্তবায়নে সকলকে ভূমিকা রাখতে হবে।

কুমিল্লা ট্রমা সেন্টারের মেডিকেল ডিরেক্টর মো: শফিউল্লাহ এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন কুমিল্লার সাবেক সভাপতি ডা. মো: শহিদুল্লাহ, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন কুমিল্লার সাধারণ সম্পাদক ডা. মো: আতাউর রহমান জসীম, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ কুমিল্লার সাধারণ সম্পাদক ডা. মোরশেদুল আলম। অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সুশিল সমাজের ব্যক্তিবর্গ ও কুমিল্লার কর্মরত সাংবাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।

কুমিল্লা ট্রমা সেন্টারের বিশিষ্ট অর্থোপেডিক সার্জন ডা. মো: আব্দুল হক বলেন, আমাদের রয়েছে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্বাবধানে দক্ষ-অভিজ্ঞ নার্সিং স্টাফ। তাছাড়া কম খরচে সংকটাপন্ন রোগীদের সেবা দেয়ার ব্যবস্থা। আমাদের আইসিইউতে উন্নত বিশ্বের যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, আমাদের আছে ডিজিটাল ব্রডব্র্যান্ড ১.৫ টেসলা এমআরআই মেশিন, বিশ্বখ্যাত ফিলিপস ব্র্যান্ডের ১২৮ স্লাইস সিটি স্ক্যান মেশিন ও সুইজারল্যান্ডের তৈরি ফান্ডাস ইমেজিং। তাছাড়া, জার্মানির তৈরি সুপার ডিজিটাল ১০০০এমএ এক্সরে মেশিন, ব্রেস্ট ক্যান্সার শনাক্তের জন্য নেদারল্যান্ডের তৈরী মেমোগ্রাফী মেশিন, তিনটি মডিউলার ওটি সহ মোট পাঁচটি অত্যাধুনিক ওটি। রোগীদের অত্যাধুনিক সেবা প্রদানে আমাদের আন্তরিকতার কোন ঘাটতি নেই।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: