কুমিল্লার তিতাস উপজেলার কলাকান্দি গ্রামে বিষধর সাপের কামড়ে নিরব নামে ৫ম শ্রেনীতে পড়ুয়া ১২ বছরের ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।
তার পিতা মো. রাসেল মিয়া জানান, আজ শনিবার দুপুর ২টায় বাড়ি টিউবলে গোছল করতে গেলে হঠাৎ চিৎকার শুনে দৌড়ে তার কাছে গেলে বলে বাবা আমার হাত থেকে পেন্টা পাশে পরে গেলে নিচ থেকে তুলতে গেলে আমার হাতে কিসে যেন কামড় দিছে। এই কথা শুনে দ্রুত গামছা দিয়ে তাহার হাতটা বাঁধি। আমাদের কাছে মনে হয়েছে সাপে কামড় দিছে।

এরপর পাশের গ্রামের ওঝা দিয়ে তাকে ঝার ফুক করার পর তার হাতের বাধন খুলে দেওয়া হয়। তারপর থেকে আস্তে আস্তে তার অবনতি শুরু হলে মাথাভাঙ্গা দরবেশের এখানে নিয়ে এলে প্রথমে একটি পান পরা খায়ানো হয়, এর পর আরেকটি পান পরা খাওয়াতে গেলে সে মৃত্যুর কোলে ডলে পরে এবং সাথে সাথে তাকে হোমনা উপজেলা স্বাষ্হ্য কমপ্লেক্সে রাত ৮টার দিকে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

এই বিষয়ে উপজেলা স্বাষ্হ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মো. ইব্রাহিম খলিল বলেন শিশুটিকে বিষধর সাপে কামড় দিছে, শিশুটির লোকজন শিশুটিকে হাসপালে নিয়ে এলে তাহার ইসিজি ও অন্যান্য পরিক্ষা নিরিক্ষা করার পর দেখা গেলো শিশুটি আর বেঁচে নেই।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: