কুমিল্লার মুরাদনগরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রড দিয়ে পিটিয়ে চাচা নুরু মিয়াকে (৯০) হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে ভাতিজার বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় সদর ইউনিয়নের দিলালাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মুরাদনগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোকাদ্দেস হোসেন।

নিহত নুরু মিয়া দিলালপুর গ্রামের দেওয়ানবাড়ির মৃত চান মিয়ার ছেলে। নিহতের মেয়ে বাদী হয়ে অলি উল্লাহ (৩০) ও রহমত উল্লাহর (২০) বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে অলি উল্লাহকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পারিবারিক ও মামলার বিবরণীতে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বৃষ্টির সময় চাচা নুরু মিয়ার বসতবাড়িতে ভাতিজার বাড়ির পানি গড়িয়ে আসে। এ সময় ভাতিজা অলি উল্লাহর পরিবারকে বৃষ্টির পানি অন্যদিক দিয়ে চলাচলের ব্যবস্থা করে দিতে বলেন নুরু মিয়া।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে ভাতিজা ঘর থেকে একটি রড এনে চাচার মাথায় আঘাত করলে গুরুতর আহত হন নুরু মিয়া। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাদেকুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় নিহতের মেয়ে বাদী হয়ে মামলা করেন। পুলিশ এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে। অন্য আসামিকে গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত আছে।

নিহত নুরু মিয়ার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: