কুমিল্লা সদর দক্ষিণের ধনাইতরীতে সুমনের মালিকানাধীন দুইটি পোল্ট্রি খামার থেকে রাতের আঁধারে পাঁচ হাজার মুরগী চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পোল্ট্রি খামার মালিক সুমন বাদি হয়ে মোহাম্মদ উল্লাহ’র বিরুদ্ধে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। উভয়ের মধ্যে ব্যবসায়িক ও আর্থিক লেনদেনের বিরোধ রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানাধীন নগরীর ২৭ নং ওয়ার্ডের ধনাইতরী এলাকায় ভাড়া নিয়ে মহিউদ্দিন সুমন দুইটি পোল্ট্রি খামার পরিচালনা করছেন। আস্থা ফিড কোম্পানীর ডিলার মহিউদ্দিন সুমনের ব্যবসায় ঈর্ষান্বিত হয়ে শনিবার রাতে প্যরাগন ফিড কোম্পানীর ডিলার সাতবাড়িয়া গ্রামের মোহাম্মদ উল্লাহ লোকজন নিয়ে পাঁচ হাজার ( প্রায় ২ কেজি ওজনের) মুরগী নিয়ে যায়। মুরগীগুলোর বর্তমান মূল্য প্রায় দশ লাখ টাকা। এ সময় সুমনের পোল্ট্রি খামারের ম্যানেজার সালাউদ্দিন মুরগী নেয়ার সময় বাঁধা দিলে তাকে অস্ত্রের জিম্মি ভয়ভীতি দেখায় বলেও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও পিকআপে তুলে ৪১ বস্তা মুরগীর খাদ্যও নিয়ে যায়। যার বাজার মূল্য প্রায় এক লাখ টাকা বলে দাবি করেছেন সুমন।

এ ঘটনায় সুমন বাদি হয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় সাতবাড়িয়া গ্রামের মোহাম্মদ উল্লাহ’র বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। রবিবার বিকালে সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মোহাম্মদ উল্লাহ’র নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, সালাউদ্দিনের কাছে পাওনা টাকার পরিবর্তে মুরগী এনেছি।
অভিযোগ দায়েরকারী সুমন বলেন, মোহাম্মদ উল্লাহ রাতের আঁধার আমার পাঁচ হাজার মুরগী চুরি করে নিয়ে গেছে। চুরির ঘটনার সঠিক বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ দেবাশীষ চৌধুরী জানান,উভয়ের মধ্যে ব্যবসায়িক ও আর্থিক লেনদেনের বিরোধ রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: