কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে সীমা আক্তার নামে এক কিশোরীকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। তার বাড়ী উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের বাবুর্চি আদর্শ গ্রামে। সে স্থানীয় জিএমআই সিরিন্জ ফেক্টরীতে কাজ করে।

বিজ্ঞাপন

গত বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) সকালে ঢাকা-চট্রগ্রাম হাইওয়ে মথুরাপুর এলাকা থেকে স্থানীয় জনতা তার লাশ উদ্ধার করে এবং ঘাতক রাকিবুল ইসলাম রনি(১৮) কে আটক করে। রাকিবুল চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার নোয়াপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।

এ বিষয়ে সীমার বড় ভাই আজাদ মিয়া(২৫) বাদী হয়ে চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, অভিযুক্ত রাকিবুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে।ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে হত্যার রহস্য জানা যাবে এবং ঘটনার সাথে অন্যকেউ জড়িত রয়েছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: