ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে শহীদনগর পর্যন্ত দীর্ঘ যানজট তৈরি হয়েছে। তিন কিলোমিটার এলাকায় সোমবার (১২ এপ্রিল) ভোররাত চারটা থেকে এই তীব্র যানজট চলে আসছে। অতিরিক্ত গাড়ির চাপে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘ সময় যানজটে আটকে থেকে যানবাহনের চালক ও যাত্রীরা ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জর উপজেলার বাসিন্দা ব্যবসায়ী মো. আলম বলেন, সকাল ছয়টায় বাসে করে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে রওনা হয়ে সকাল সাড়ে নয়টায় তিনি দাউদকান্দির গৌরীপুরে পৌঁছেছেন। ৫০ কিলোমিটার পথ যেখানে এক ঘণ্টায় পাড়ি দেওয়া যায়, সেখানে আজ সাড়ে তিন ঘণ্টা লেগেছে। অতিরিক্ত গাড়ির চাপে মহাসড়কে এখন যানজট।

হাজীগঞ্জের বাকেরপাড়ার গৃহবধূ জাকিয়া বেগম বলেন বড় মেয়ে রুমার বাসা ঢাকার পোস্তগোলায় বেড়াতে গিয়েছিলেন তিনি। লকডাউনের কথা শুনে সকালে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। পিকআপ ভ্যানে ২০০ টাকা ভাড়ায় দাউদকান্দি পৌঁছেছেন। বাকি পথ ভেঙে ভেঙে যাবেন।

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার কালিয়ারচর গ্রামের মাদ্রাসাছাত্র জাহিদ হাসান মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় মা মরিয়ম বেগমকে নিয়ে সকালে ঢাকা থেকে বাড়ির দিকে রওনা দিয়েছেন। পথে পথে যানজটে ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে বলে অভিযোগ তার।

ইনসাফ পরিবহনের বাসচালক আবুল হাশেম, কাভার্ডভ্যান চালক হোসাইন, ট্রাকচালক শুক্কুর আলী ও রহমান মিয়া বলেন, ঢাকা থেকে দাউদকান্দি পর্যন্ত ৫০ কিলোমিটার সড়ক যেতে এক ঘণ্টার বদলে সাড়ে তিন থেকে সাড়ে চার ঘণ্টা লাগছে। অসংখ্য যানবাহন একযোগে মহাসড়কে বের হওয়ায় এই যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

দাউদকান্দি হাইওয়ে পুলিশের দায়িত্বরত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আলিমুল আল রাজী বলেন, অতিরিক্ত যানবাহন চলাচল ও সড়ক দুর্ঘটনার কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। যানজট নিরসনের চেষ্টা চলছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: