বরুড়া উপজেলা আগানগর ইউনিয়নের শরাফতি মধ্যম পাড়ায় এক উঠান বৈঠকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মাজহারুল ইসলাম মিঠুর উঠান বৈঠকে গুলি বর্ষণে অন্তত ৫ জন কর্মী আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আহতরা হলেন, শরাফতি গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে রবিউল (৩০), আবদুল জলিলের ছেলে রাব্বি (৩১), দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আলী হোসেন (২০), আক্কাস আলীর ছেলে অলিউল্লাহ (৪০) ও জয়নাল আবদীনের ছেলে ওমর ফারুক (৪০)।আহত ৫ কর্মীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মিঠু জানান, আমার সমর্থকদের উদ্যোগে আয়োজিত উঠান বৈঠকে আমি পৌছার আগে দুর্বৃত্তরা গুলি বর্ষণ ও ককটেল নিক্ষেপ করে। এতে আমার অন্তত ৫ জন কর্মী গুরুতর আহত হয়। তাদের কুমেকে হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছি। সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরলে মামলা করা হবে।

এ বিষয়ে বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার মজুমদার বলেন, শরাফতি গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের খবর শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: