কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা সদরসহ বিভিন্নস্থানের রাস্তা-ঘাটগুলো দিন দিন ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। এতে প্রতিদিন জনগণের দুর্ভোগ বাড়ছে। বর্ষা মৌসুমে টানা বৃষ্টিতে সংস্কারবিহীন সড়কগুলোতে অতিরিক্ত পানি জমে যানচলাচলসহ পথচারীদের হাটাচলায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এছাড়াও ক্ষতিগ্রস্থ সড়কের খানা-খন্দকে পড়ে দুর্ঘটনাকবলিত হচ্ছে ছোটখাটো যানবাহন, মোটরসাইকেল আরোহীর

সরেজমিন ঘুরে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, জেলার বুড়িচং উপজেলা সদরের বেশ কটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কই খানা-খন্দকে পরিপূর্ণ। উপজেলার প্রধান কুমিল্লা-বুড়িচং-ব্রাহ্মনপাড়া-মীরপুর সড়কটির উপজেলা সদরের একাধিকস্থানে রয়েছে খানা-খন্দক। উপজেলা আ’লীগ কার্যালয়ের সামনের এই সড়কটি অতিরিক্ত বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় পথচারী ও যানবাহনচালকদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে,এইস্থানে বর্ষার বৃষ্টিতে অতিরিক্ত পানি নিস্কাশনের কোন কার্যকর ব্যবস্থা না থাকায় এই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে অটোরিক্সা,ইজিবাইক অনেক সময় দুর্ঘটনাকবলিত হচ্ছে। বুড়িচং উপজেলা সদরের বসুন্ধরা হোটেলের সম্মুখে তেমাথার শুরু থেকে উপজেলা ডাকবাংলো পর্যন্ত সড়কটির অবস্থা এতটাই বেহাল যে, সড়কটির সকাল-সন্ধা হোটেলের পাশ থেকে পোষ্টঅফিস সংলগ্ন স্থানটি বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায়।

স্থানীয় একাধিক ব্যবসায়ী,সিএনজি অটোরিক্সাচালক ও পথচারীরা জানান, এইস্থানটিতে পানি নিস্কাশনের কোন সু-ব্যবস্থা নাই। ফলে বৃষ্টিতে এখানে পানি জমে দীর্ঘ জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে প্রায়ই অটোরিক্সা,ইজিবাইক,রিক্সা,মোটরসাইকেল উল্টেগিয়ে ছোটখাটো দুর্ঘটনা কবলিত হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সুত্র জানায়, উপজেলা প্রশাসনের প্রধান এই সড়কটি দীর্ঘদিন ধরেই সংস্কারবিহীন পড়ে আছে। এঅবস্থায় স্থানীয়দের দাবী দ্রুত এই সড়কগুলোর সংস্কার করে জনদুর্ভোগ থেকে মুক্তির ব্যবস্থা করা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: